আমড়া ফল | আমড়ার উপকারিতা | আমড়ার গুনাগুন

আমড়া ফল | আমড়ার উপকারিতা | আমড়ার গুনাগুন

স্বাস্থ্য ও সচেতনতা নিয়ে আমাদের আজকের এই পর্বে আপনাকে স্বাগতম। ইতোমধ্যেই আমরা বিভিন্ন ভেজষ ঔষুধি গাছ এবং ফল-ফলাদির গুণাগুণ সম্পর্কে আলোচনা করেছি। আজ আমরা জানবো আমড়ার উপকারিতা সম্পর্কে।

পৃথিবীতে যত তৃণলতা ফল মূল আছে, সবকিছুই মানবদেহের জন্য উপকারী। মহান স্রষ্টার সৃষ্টির মাঝে বিশেষ কিছু নিদর্শনাবলী রয়েছে, সেই নিদর্শনাবলীতে ফলকেও রাখা যায়। বিভিন্ন জাতের ফল এই ভূখন্ডে উৎপাদিত হয়। তার মধ্যে বিশেষ একটি ফলের নাম হলো আমড়া। এই ফলে রয়েছে ঔষধিগুণের অজানা ক্ষমতা। কিন্তু এই ফলটি সম্পর্কে আমাদের প্রায় মানুষই জানে না।

আমড়া ফলটি সামান্য টক হলেও এর চাহিদা অনেক। বিশেষ করে নারীদের কাছে এই ফলটি খুবই পছন্দের। রাস্তার মোড়ে, গ্রামে গঞ্জে, শহর এলাকাতেও এই আমড়া পাওয়া যায়।

আমড়ার উপকারিতা

() আমড়ায় আছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি, যা মানব দেহের স্কার্ভি রোগ প্রতিরোধ করে। প্রশ্ন জাগতে পারে স্কার্ভি কী? স্কার্ভি হচ্ছে এমন একটি রোগ, যে রোগের কারণে দাঁতের মাড়ি ফুলে যায়, দাঁতের গোড়া থেকে দুর্গন্ধ পুঁজ বা রক্ত বের হয়, অথবা দাঁতের গোড়ায় প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব হয়।

(২) আমড়া ফল খেলে মানব দেহের কোষ্ঠকাঠিন্য রোগ দূর হয়যাদের দীর্ঘদিনের পুরানো কফ আছে, তারা আমড়া ফল খান।

(৩)আমড়া খেলে দীর্ঘদিনের পুরানো কফ দূর হয়ে যাবে।

(৪) শরীরের বাড়তি ওজন কমাতে সহায়তা করে।রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সহায়তা করে।

(৫) অ্যান্টি -অক্সিডেন্টজাতীয় উপাদান থাকায় আমড়া ফল বার্ধক্যকে প্রতিহত করে।

(৬) শরীরের ক্ষুধামন্দাভাব দূর করে আমড়া ফল।

(৭) পাকস্থলী সুস্থ রাখে।

(৮) ক্যান্সারের মতো মারাত্মক রোগ প্রতিরোধেও আমড়া বিশেষভাবে কাজ করে।

এগুলো ছাড়াও আমড়া ফলে আরো অনেক গুনাগুণ রয়েছে, যা মানব দেহকে সুস্থ্য রাখতে সাহায্য করে। আপনি যদি আপনার স্বাস্থ্যকে ঠিক রাখতে চান, তবে প্রাকৃতিক ফল ভক্ষণের কোনো বিকল্প নেই।

আমি আশা করছি বরাবরেও মতই স্বাস্থ্য সচেতনতা নিয়ে আজকের পর্বটিও আপনার উপকারে আসবে ইনশাআল্লাহ। আমড়ার উপকারিতা সম্পর্কে কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকলে কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ

It Studio

Add comment

error: Content is protected !!