কম দামে ভালো রাউটার - সেরা ৫টি ওয়াইফাই রাউটার

কম দামে ভালো রাউটার | সেরা ৫টি ওয়াইফাই রাউটার

ইন্টারনেট ব্যবহারের খুবই জনপ্রিয় একটি মাধ্যম হলো ওয়াইফাই রাউটার। হাই রেঞ্জ রাউটার এর দাম বেশী হওয়ার দরুণ ব্যবহারকারীদের বেশির ভাগই এই ধরণের রাউটার ব্যবহার করতে পারে না। তাই অধিকাংশ লোকই কম দামে ভালো রাউটারের দিকেই মনোনিবেশ করে।

ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস গুলোর দাম লাগামহীন ভাবে বেড়ে যাওয়ার কারণে রাউটারের দামও অনেকটা বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই এই মূহুর্তে রাউটার সিলেকশন অনেকের জন্যই কমপ্লিকেটেড ব্যাপারও বটে।

আমি রাউটার নিয়ে বেশ কয়েকদিন ঘাটাঘাটি করার পর কম দামে অনেকগুলো রাউটারের মডেল খুঁজে বের করেছি। যেগুলোকে কম দামের মধ্যেই বেশি রেঞ্জের রাউটার হিসেবেই বিবেচনা করা যায়।

জনপ্রিয় বিভিন্ন ব্র্যান্ডের রাউটার গুলো মধ্যে রয়েছে টেন্ডা রাউটার, টিপি লিংক রাউটার, ডি লিংক রাউটার, আসুস রাউটার এবং শাওমি রাউটার ইত্যাদি।

আমি এই ৫টি ব্র্যান্ডের মধ্যে ২০২২ সালের সেরা ৫টি ওয়াইফাই রাউটার মেশিন এর দাম এবং রাউটারের পুরো স্পেসিফিকেশন আপনাদের সামনে তুলে ধরতে চেষ্টা করেছি। আশাকরি এতে আপনারা বাজেটে ভালো রাউটার সহজেই খুঁজে পাবেন।

কম দামে ভালো রাউটার ২০২২

রাউটার মূলত একটি নেটওয়ার্কিং ডিভাইস যা বিভিন্ন নেটওয়ার্কের মধ্য দিয়ে ডাটা আদান -প্রদানের গন্তব্য নির্ধারণ করে।

একটি রাউটারের মধ্যে বিভিন্ন ফিচার থাকে। আর এই ফিচার গুলোর মধ্য দিয়েই রাউটারের ইন্টারনেট স্পিড ও রেঞ্জের বিষয়টা নিহিত থাকে এবং এরই ভিত্তিতে রাউটারের দাম নির্ধারণ করা হয়।

অপটিক্যাল ফাইবার তারের সাহায্যে ইন্টারনেট সংযোগের জন্য ব্যবহৃত রাউটারের মধ্যে আবার 3G, 4G এবং 5G রয়েছে।

অনেকেই মনে করেন হাই রেঞ্জ রাউটার শুধুমাত্র 4G এবং 5G টেকনোলজিতেই সীমাবদ্ধ। তবে সত্যিকার অর্থে 5G হলেই যে 3G এর থেকে রাউটারের রেঞ্জ বেশী হবে বিষয়টা এমন নয়।

একটি রাউটার ভালো হওয়ার জন্য অনেকগুলো টেকনোলজিক্যাল ফিচারের সমন্বয় ঘটাতে হয়। সেইদিক বিবেচনায় রেখে কম দামে ভালো রাউটার কোনটি তাই নিচে তুলে ধরা হলো।

, Tenda F6 300Mbps N300

ব্র্যান্ড ও মডেলঃ Tenda F6
রাউটার টাইপঃ ওয়্যারলেস &
ইথারনেট
ডেটা রেটঃ 300 Mbps
অ্যান্টেনাঃ 4 অ্যান্টেনা
ফিকোয়েন্সিঃ 2.4GHz
ওয়াইফাই
নেটওয়ার্ক
স্ট্যান্ডার্ডঃ
IEEE 802.11b,
g,n,
IEEE 802.3,3u
বাটনঃ রিসেট &
ওয়াইফাই
বাটন
এনক্রিপশনঃ WPA / WPA2
mixed
Advanced
wireless
encryption
পোর্টসঃ ৩টি ল্যান পুর্ট।
অপারেটিং
সিস্টেম
সাপোর্টঃ
উইন্ডোজ 7 থেকে
পরবর্তী সকল
উইন্ডোজ সংস্করণ,
লিনাক্স, iOS 6 +
এবং অ্যান্ড্রয়েড 6
এর পরবর্তী সকল
সংস্করণে সাপোর্ট
করে।
পাওয়ারঃ ইনপুট:
100-240V-50
/ 60Hz 0.3A
আউটপুট:
DC 9V == 0.6A
কালারঃ সাদা
ওজনঃ  200 গ্রাম
ডাইমেনশনঃ 127.4mm
* 90.5mm
* 26mm
ওয়ারেন্টিঃ বছর
মূল্যঃ 1,500 টাকা।

Tenda F6 (300M) মডেলের ওয়্যারলেস রাউটারটি বিশেষভাবে অফিস এবং বাড়ির জন্য খুবই চমৎকার ভাবে ডিজাইন করা হয়েছে।

এই রাউটারটি দিয়ে সমস্ত স্মার্টফোন, ট্যাবলেট এবং কম্পিউটার -ল্যাপটপের মতো ডিজিটাল ডিভাইস গুলোতে ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপন করতে পারবেন।

11N ওয়্যারলেস স্ট্যান্ডার্ডের উপর ভিত্তি করে রাউটারটি 300Mbps পর্যন্ত ওয়্যারলেস ডেটা ট্রান্সমিশন রেট প্রদান করে এবং নেটওয়ার্কিংকে আরও বেশি সহজ করে তোলে।

Tenda F6 ওয়াইফাই রাউটারের ফ্রিকোয়েন্সি 2.4GHz এবং এটি 802.11 b/g/n প্রোটোকল সমর্থন করে।

রাউটারটিতে Windows 7 বা তার পরবর্তী সকল উইন্ডোজ সংস্করণ, Linux, iOS 6 বা এর উচ্চতর সংস্করণ, এবং Android 6 বা তার পরবর্তী সকল সংস্করণে এই রাউটারটি কার্যকরী।

৩টি Lan পুর্ট এবংটি WAN নিয়ে গঠিত এই রাউটারটিতে ৪টি অ্যান্টেনা রয়েছে। তাই দেখতে বেশ সুন্দরও বটে।

এক বছরের ওয়ারেন্টি সহ বাংলাদেশের বাজারে রাউটারটি মাত্র ,৫০০/- টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

২, D-Link DIR-650IN N300 Mbps

ব্র্যান্ড ও মডেলঃ D-Link
DIR-650IN
রাউটার টাইপঃ ওয়্যারলেস &
ইথারনেট
ডেটা রেটঃ 300 Mbps
অ্যান্টেনাঃ 4 অ্যান্টেনা
ফিকোয়েন্সিঃ 2.4GHz
ওয়াইফাই
নেটওয়ার্ক
স্ট্যান্ডার্ডঃ
IEEE 802.11b,
g,n,
IEEE 802.3,3u
বাটনঃ পাওয়ার বাটন,
ওয়াইফাই বাটন,
WPS বাটন,
রিসেট বাটন।
সিকিউরিটিঃ WPA এবং WPA2
(ওয়াই-ফাই সুরক্ষা
অ্যাক্সেস),
ওয়াই-ফাই সুরক্ষা
সেটআপ (WPS),
WEP 64/128 বিট
তথ্য এনক্রিপশন
পোর্টসঃ ৩টি ল্যান পুর্ট।
অপারেটিং
সিস্টেম
সাপোর্টঃ
উইন্ডোজ,
ম্যাক,
লিনাক্স
অপারেটিং
সিস্টেম।
পাওয়ারঃ পাওয়ার
ইনপুট
কানেক্টর (DC)
কালারঃ কালো।
ওজনঃ ০.২৯৪ কেজি।
ডাইমেনশনঃ 255.9 x
168 x
41.2 mm
ওয়ারেন্টিঃ 3 Years
(with Burn
Case)
মূল্যঃ 1,550 টাকা।

ডি লিংক রাউটার গুলোর মধ্যে DIR-650IN মডেলের রাউটারটি খুবই দ্রুত এবং নিরাপদ ওয়্যারলেস সংযোগের জন্য বেশ কার্যকরী।

রাউটারটি ৪ অ্যান্টেনা বিশিষ্ট, যার ডেটা রেট 300 Mbps এবং 2.4GHz ফিকোয়েন্সিতে কাজ করে।

এই রাউটারটি মাঝারি আকারের অফিস ও বাড়িতে ব্যবহারের জন্য খুবই উপযোগী।

D-Link DIR-650IN মডেলের রাউটারটির মাধ্যমে ওয়্যারলেস এবং ইথারনেট সংযোগ দেওয়া যায়।

রাউটারটিতে রয়েছে ৩টি Lan পুর্ট এবংটি WAN পুর্ট। তাছাড়া পাওয়ার বাটন, ওয়াইফাই বাটন, WPS বাটন, রিসেট বাটন ইত্যাদি ফিচারে রাউটারটিকে সমৃদ্ধ করেছে।

এই রাউটারটিতে ৪টি অ্যান্টেনা রয়েছে। তাই দেখতে বেশ ভালো লাগে।

রাউটারটি উইন্ডোজ, ম্যাক, লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমে খুব চমৎকার ভাবেই চলবে।

D-Link DIR-650IN রাউটারটি 01 বছরের ওয়ারেন্টি সহ বাংলাদেশের বাজারে 1,550 টাকায় পাওয়া যায়।

৩, Asus RT-N12+ 300 Mbps

ব্র্যান্ড ও মডেলঃ Asus RT-N12+
রাউটার টাইপঃ ওয়্যারলেস &
ইথারনেট
ডেটা রেটঃ 300 Mbps
অ্যান্টেনাঃ 2 অ্যান্টেনা
ফিকোয়েন্সিঃ 2.4GHz
ওয়াইফাই
নেটওয়ার্ক
স্ট্যান্ডার্ডঃ
IEEE
802.11b,
g, n,
IPv4,
IPv6
বাটনঃ WPS, Power
সিকিউরিটিঃ WEP, WEP,
WPA2-PSK,
WPA-PSK,
WPA-Enterprise,
WPA2-Enterprise,
WPS সাপোর্ট করে।
পোর্টসঃ ৪টি ল্যান পুর্ট ও
১টি WAN পুর্ট।
অপারেটিং
সিস্টেম
সাপোর্টঃ
উইন্ডোজ 7,
8, 8.1, 10,
এক্সপি,
ম্যাক OS X,
লিনাক্স
অপারেটিং
সিস্টেম।
পাওয়ারঃ এসি ইনপুট:
110V~240V
(50~60Hz)
ডিসি আউটপুট:
সর্বোচ্চ 12 V,
0.5 এ কারেন্ট
কালারঃ কালো।
ব্যান্ডঃ সিঙ্গেল।
ডাইমেনশনঃ 146 x
111
x 24mm
ওয়ারেন্টিঃ ২ বছর
মূল্যঃ 1,900 টাকা।

ASUS RT-N12+ হল একটি 300Mbps ডেটা রেটের ২ অ্যান্টেনা বিশিষ্ট একটি চমৎকার ওয়্যারলেস রাউটার।

রাউটারটিকে WPS এবং Power বাটন রয়েছে এবং এটি ওয়্যারলেস এবং ইথারনেট সংযোগের জন্য বেশ কার্যকর।

রাউটারটির ফিকোয়েন্সি হলো 2.4GHz এবং বডি কালার কালো।

৪টি ল্যান পুর্ট ও টি WAN পুর্ট ফিচারের রাউটারটি বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করছে।

এটি উইন্ডোজ এক্সপি, 7, 8, 8.1, এবং উইন্ডোজ 10 , ম্যাক OS X, লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করবে।

রাউটারটিতে ২ অ্যান্টেনা হলেও বেশ দ্রুত গতিতেই ডেটা আদান প্রদান করতে পারে।

ASUS RT-N12+ মডেলের রাউটারটির একটি চমৎকার দিক হলো এটিতে রয়েছে ২ বছরের ওয়ারেন্টি এবং বাংলাদেশের বাজারে এটি 1,900 টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

৪, Xiaomi MI 4C R4CM 300 Mbps

ব্র্যান্ড ও মডেলঃ Xiaomi MI
4C R4CM
রাউটার টাইপঃ ওয়্যারলেস &
ইথারনেট
ডেটা রেটঃ 300 Mbps
অ্যান্টেনাঃ 4 অ্যান্টেনা
ফিকোয়েন্সিঃ 2.4GHz
এনক্রিপশনঃ WPA-PSK,
WPA2-PSK
বাটনঃ রিসেট বাটন।
অপারেটিং
সিস্টেম
সাপোর্টঃ
উইন্ডোজ,
ম্যাক,
লিনাক্স
অপারেটিং
সিস্টেম।
পাওয়ারঃ পাওয়ার
ইনপুট
কানেক্টর (DC)
কালারঃ সাদা
ডাইমেনশনঃ 24.00 x
16.00 x
3.00 cm
ওয়ারেন্টিঃ ৩ মাস
মূল্যঃ 1,150 টাকা।

Xiaomi MI 4c মডেলের রাউটারটির ট্রান্সমিশন রেট 300Mbps এবং এটিতে শক্তিশালী সিগন্যালের জন্য ৪টি অ্যান্টেনা রয়েছে।

রাউটারটি ওয়্যারলেস এবং ইথারনেট সংযোগের জন্য ব্যবহার করা হয়।

এই রাউটারের ফিকোয়েন্সি 2.4GHz এবং বডি কালার হলো সাদা।

রাউটারটির এনক্রিপশন হিসেবে WPA-PSK এবং WPA2-PSK প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে।

Xiaomi MI 4c মডেলের রাউটারটি উইন্ডোজ, ম্যাক, লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেম সাপোর্ট করে।

রাউটারটিতে রয়েছে ২টি Lan পুর্ট এবংটি WAN পুর্ট। পাশাপাশি একটি রিসেট বাটনও রয়েছে।

এটি 3 মাসের ওয়ারেন্টি সহ বাংলাদেশের বাজারে 1,150 টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

৫, TP-Link TL-WR850N 300 Mbps

ব্র্যান্ড ও মডেলঃ Tp-link
TL-WR850N
রাউটার টাইপঃ ওয়্যারলেস &
ইথারনেট
ডেটা রেটঃ 300 Mbps
অ্যান্টেনাঃ 2 অ্যান্টেনা
ফিকোয়েন্সিঃ 2.4GHz
নেটওয়ার্ক
স্ট্যান্ডার্ডঃ
IEEE 802.11n,
IEEE 802.11g,
IEEE 802.11b
বাটনঃ WPS এবং
RESET বাটন
সিকিউরিটিঃ 64/128-bit
WEP,
WPA / WPA2,
WPA-PSK /
WPA2-PSK
পোর্টসঃ ৪টি Lan,
টি WAN
অপারেটিং
সিস্টেম
সাপোর্টঃ
উইন্ডোজ 7,
8, 8.1,
10, Vista,
XP, 2000,
Mac OS বা
Linux-
অপারেটিং
সিস্টেম
পাওয়ারঃ 9VDC /
0.6A
কালারঃ সাদা
ডাইমেনশনঃ 7.2 x
5.0 x
1.4in.
(182 x
128 x
35 mm)
ওয়ারেন্টিঃ বছর
মূল্যঃ 1,419 টাকা।

300Mbps স্পিডে ডেটা ট্রান্সমিশন রেট ব্যান্ডউইথ বিশিষ্ট রাউটার গুলোর মধ্যে Tp-link TL-WR850N মডেলের রাউটারটিও বেশ জনপ্রিয়।

রাউটারটির মাধ্যমে ওয়্যারলেস এবং ইথারনেট সংযোগ স্থাপন করা যায়।

২ অ্যান্টেনা বিশিষ্ট এই রাউটারের ফিকোয়েন্সি হলো 2.4GHz এবং এর বডি কালার হলো সাদা।

রাউটারটিতে রয়েছে ৪টি Lan পুর্ট এবং টি WAN পুর্ট। পাশাপাশি WPS এবং RESET বাটন রাউটারটিকে ফিচারে সমৃদ্ধ করেছে।

এই রাউটারটি উইন্ডোজ 7, 8, 8.1, 10, Vista, XP, 2000, Mac OS বা Linux- অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করবে।

বাংলাদেশের বাজারে Tp-link এর TL-WR850N মডেলের রাউটারটি এক বছরের ওয়ারেন্টি সহ মাত্র 1,419 টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথাঃ

প্রিয় পাঠক, আমি চেষ্টা করেছি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ওয়াইফাই রাউটার গুলোর মধ্যে সবচেয়ে কম দামে ভালো রাউটার গুলোকে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করা জন্য।

আমি এই রাউটারগুলোর প্রাইজ টু পারফর্সেন্স বিবেচনায় সেরার তালিকায় রেখেছি। এমনকি আমি নিজেই উপরোল্লিখিত রাউটারগুলোর মধ্যে প্রথম দুটি রাউটার ব্যবহার করেছি।

আপনি যদি কম দামের মধ্যে ব্র্যান্ডের রাউটার ব্যবহার করতে চান তবে আশাকরি ফিচার বিবেচনায় এই রাউটার গুলো আপনার পছন্দ হবে ইনশাআল্লাহ।

রাউটার গুলো নিয়ে যদি আপনার কোনো পরামর্শ বা মন্তব্য থাকে তবে অবশ্যই কমেন্ট করতে ভুলবেন না। আমি যথাসাধ্য আপনার প্রশ্নের উত্তর দেবো ইনশাআল্লাহ।

NAZIRUL ISLAM NAKIB

যত জ্ঞান-ধন করেছি অর্জন জীবনের প্রয়োজনে,
তার সবটুকুই বিলাতে চাই সৃষ্টির কল্যাণে।

Add comment

সাবস্ক্রাইব করুন 👇

Your Header Sidebar area is currently empty. Hurry up and add some widgets.

error: কপি করা যাবে না বস!!