ডোমেইন অথরিটি কি - DA PA কি?

ডোমেইন অথরিটি (Domain Authority) কি? কিভাবে বাড়াবেন?

প্রিয় পাঠক, আপনার যদি একটি পার্সোনাল ওয়েবসাইট থাকে, তবে ডোমেইন অথরিটি কি বা পেজ অথরিটি কি এই বিষয়ে আপনাকে জানা জরুরি। বিশেষ করে যারা ব্লগিং ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেন, তাদের জন্য এই বিষয়টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

দীর্ঘদিন ধরে ওয়েব এবং এসইও এর কাজ করতে গিয়ে বুঝতে পারলাম যে, বেশীর লোক এমন আছে, যারা ডোমেইন অথরিটি (Domain Authority) বা পেজ অথরিটি (Page Authority) সম্পর্কে কিছুই জানেই না। আমার অভিজ্ঞতা থেকে আজ আমি এই বিষয়টির আদ্যোপান্ত আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।

ডোমেইন অথরিটি কি?

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO) এর ভাষায় Domain Authority কে সংক্ষিপ্ত ভাবে DA বলা হয়। জনপ্রিয় টুলস MOZ  দ্বারা এটি নির্ণয় করা হয়। ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক এবং সার্চ ইঞ্জিন র‌্যাঙ্কিংয়ে আপনার ওয়েবপেজ কেমন পারফর্ম করছে তার উপর ভিত্তি করে ডোমেইনের একটি (আনুমানিক) স্কোর দেয় তারা। এটাই মূলত ডোমেইন অথরিটি বা ডিএ।

Domain Authority এর পরেই Page Authority এর কথা চলে আসে। চলুন পেজ অথিরিটি কি তা জেনে নিই।

পেজ অথরিটি কি?

এসইও এর ভাষায় Page Authority কে PA বলা হয়। এটি মূলত সার্চ ইঞ্জিনে আপনার ওয়েবসাইটের পেজ পারফর্মেন্সের একটি গড় স্কোর। ডোমেইন অথরিটি, ব্যাকলিংক এবং সার্চ ইঞ্জিন পারফর্মেন্সের উপর ভিত্তি করে দেওয়া হয়। এটিও MOZ  টুলস দ্বারা নির্ণয় করা করা হয়।

এক্সামপল হিসেবে MOZ টুলস এর ডেশবোর্ডের একটি স্ক্রিনশর্ট নিচে দেওয়া হলো। যেখানে example একটি ডোমেইন নাম দেওয়া আছে। এই অংশে আপনার ডোমেইনের নামটি দেবেন তারপর Analyze এর মাধ্যমে ক্লিক করবেন। তাহলেই আপনার ডোমেইনের অথরিটি সম্পর্কে জানতে পারবেন।

ডোমেইন অথরিটি কি (Domain Authority কি)
ডোমেইন অথরিটি কি

তবে MOZ  টুলস ছাড়াও আরো জনপ্রিয় কিছু টুলস রয়েছে। আপনার ডোমেইন অথিরিটি কত এবং পেজ অথরিটি কত তা সেই সমস্ত টুলসের মাধ্যমেও জানতে পারবেন।

DA, PA এর কাজ কি?

DA দ্বারা আপনার ডোমেইনের শক্তি এবং PA দ্বারা ওয়েবসাইটের পেজ সমূহের শক্তি বুঝানো হয়। অর্থাৎ, আপনার ওয়েবসাইটের DA, PA যত বেশী হবে, সার্চ ইঞ্জিনের রেজাল্টে আপনার ওয়েবসাইট ততই এগিয়ে থাকবে।

DA, PA নিয়ে সাধারণ প্রশ্ন

অনেকেই প্রশ্ন করতে পারেন, আমরা কেন থার্ডপার্টি টুলস ব্যবহার করে ডোমেইন অথরিটি বা পেজ অথরিটি নির্ণয় করবো? গুগল বা অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন নিজেরা কেন এই অথরিটি সিস্টেম প্রকাশ্যে আনে না? এটা মূলত গুগলের একটি চমৎকার নীতি। সকলেই জানেন, গুগলের ২০০ টিরও বেশী র‌্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর রয়েছে। এটা গুগল অফিসিয়ালিই বলেছে। তবে তারা কখনই একটি র‌্যাঙ্কিং ফ্যাক্টরও প্রকাশ্যে আনেনি। এর প্রধান কারণ হলো বিজনেস টিকিয়ে রাখা।

গুগলের র‌্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর গুলো যদি বলে দেওয়া হয়, তবে এসইও বলতে আর কিছুই থাকবে না। তখন যে কেউ এই র‌্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর গুলো ফলো করে সার্চ রেজাল্টে জায়গা করে নেবে। এতে সকল সার্চ ইঞ্জিনের বাণিজ্যিক সিস্টেমটি ধ্বংস হয়ে যাবে। এজন্যই মূলত র‌্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর গুলো কখনই প্রকাশ্যে আনা হয় না।

তবে ইন্টারন্যাশানাল এসইও এক্সপার্টদের সম্মিলিত মতে Domain Authority এবং Page Authority গুগলের র‌্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর তালিকার ৪/৫ নাম্বারে রয়েছে। তাই কোন ভাবেই এটিকে এড়িয়ে চলা উচিত নয়।

DA, PA কিভাবে চেক করবেন?

আপনার সাইটের ডোমেইন অথরিটি এবং পেজ অথরিটি MOZ টুলসের মাধ্যমে চেক করতে পারবেন। তবে MOZ এর মতো আরো অনেক টুলস রয়েছে, তারাও ব্যাকলিংক এবং সার্চ ইঞ্জিনের রেজাল্টে ডোমেইনের পারফর্মেন্সের উপর ভিত্তি করে ডোমেইনের একটি স্কোর প্রদান করে। এমন কিছু জনপ্রিয় কিছু টুলসের নামঃ

  • MOZ
  • Ahrefs
  • SEO Review Tools

এই টুলস গুলো মূলত বিভিন্ন ভাবে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সমস্ত ওয়েবসাইটের ডেটা কালেক্ট করে। এবং সেই ডেটার উপর ভিত্তি করে ওয়েবসাইট ডোমেইন এবং পেজকে স্কোর প্রদান করে। যারা সবচেয়ে বেশী ডেটা কালেক্ট করতে পারে, তাদের একটি হলো MOZ এবং Ahrefs.

আমার কাছে Ahrefs টুলসটিও যথেষ্ট ইউজার ফ্রেন্ডলি মনে হয়। Ahrefs ডেশবোর্ডের একটি স্ক্রিনশর্ট নিচে দেওয়া হলো। স্ক্রিনশর্টটিতে itnirman.com ডোমেইনটির নাম দেওয়া আছে। এই অংশটিতে আপনার ডোমেইনের পুরো নামটি দেবেন তারপর Check Backlinks এর মাধ্যমে ক্লিক করবেন। তাহলেই আপনার ডোমেইনের ব্যাকলিংক এবং অথরিটি সম্পর্কে জানতে পারবেন।

ডোমেইন অথরিটি কি
ডোমেইন অথরিটি (Domain Authority) কি

সকলেই জানেন, কোন ভাবে যদি সার্চ ইঞ্জিনের রেজাল্টে র‌্যাংক করা যায়, তবে ওয়েবসাইটে ভিজিটরও বাড়ে এবং ইনকামও বাড়ে। কিন্তু প্রায় মানুষের একটি প্রশ্ন হলো আমার সাইটের DA, PA কিভাবে বাড়াবো? এমন প্রশ্ন অনেকেই করে। তাদের জন্য কিছু নির্দেশনা।

ওয়েবসাইটের DA PA কিভাবে বাড়াবেন?

আপনার ওয়েবসাইটের DA এবং PA বাড়ানোর একমাত্র সহজ উপায় হলো কোয়ালিটি ব্যাকলিংক। অর্থাৎ, আপনার ওয়েবসাইটের জন্য অথরিটি সাইট বা বড় সাইট থকে ব্যাকলিংক নিয়ে আসতে হবে। তবে খুব দ্রুতই আপনার সাইটের অথরিটি বাড়তে থাকবে। অনেকেই হয়ত ব্যাকলিংক কি জানেন না। তারা এখান থেকে জেনে নিনঃ ব্যাকলিংক কি?

হাজার হাজার লো কোয়ালিটির ব্যাকলিংকের চেয়ে একটি কোয়ালিটি ব্যাকলিংক অনেক উপকারী। আমি পার্সোনালি এর উপর রিসার্চ করে দেখেছি।
আমি গত ৬ ডিসেম্বর ২০২ তারিখে একটি নতুন ডোমেইন কিনেছি। নতুন হওয়ায় ডোমেইনটির DA 0, PA 0 ছিল। ৮ ডিসেম্বের ডোমেইনটির জন্য একটি কোয়ালিটি প্রোফাইল ব্যাকলিংক তৈরি করি।

৯ ডিসেম্বের ব্যাকলিংকটি ইনডেক্স হয়েছে। শুধুমাত্র এই একটি ব্যাকলিংকেই সেই ডোমেইনটির DA 4, PA 5 হয়ে গেছে। বিষয়টি আপনাদের কাছে এজন্যই শেয়ার করছি, এসইও নিয়ে অনেকেই কাজ করে, তারা শুধু ব্যাকলিংকের পিছনে দৌঁড়ায়।

মজার বিষয় হলো কেহই কোয়ালিটির কথা বিবেচনা করে না। আজে বাজে সাইট থেকে ব্যাকংলিংক তৈরি করে ডোমেইনের স্প্যাম স্কোর বাড়ায়। সত্যি বলতে এর একটি পার্শপ্রতিক্রিয়া তৈরি হয়, যার দরুণ লাভের চেয়ে ক্ষতির দিকটা ভারী হয়ে যায়। তাছাড়া, আজে বাজে লিংকগুলো ডোমেইনের অথরিটি সিস্টেমটি ডেমেজ করে দেয়। যার কারণে পরবর্তীতে হাই কোয়ালিটি ব্যাকলিংকগুলো ইনডেক্স হতে অনেক দেরি হয়ে যায় বা প্রোপারলি কাজ করে না।

তাই, আপনার ডোমেইন অথরিটি বাড়ানোর জন্য লক্ষ লক্ষ ব্যাকলিংকের প্রয়োজন হবে না। আপনি যদি কোয়ালিটির বিবেচনায় শুধুমাত্র ৫০০ টি ব্যাকলিংক তৈরি করতে পারেন, তবে দেখবেন আপনার DA 20+ এবং PA 40+ হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ। কোয়ালিটি ব্যাকলিংক কিভাবে তৈরি করবেন তা এই আর্টিকেল থেকে জেনে নিনঃ কোয়ালিটি ব্যাকলিংক তৈরির সহজ উপায়

DA, PA বাড়ানোর টিপস

() হাই কোয়ালিটি আর্টিকেল তৈরি করুন। প্রত্যেকটা আর্টিকেলে ইন্টারনাল লিংক রিলেটেড আর্টিকেলের সাথে গুছালোভাবে প্রয়োগ করুন। ইন্টারনাল লিংক সার্চ ইঞ্জিনের কাছে কন্টেন্টের চমৎকার ভ্যালু তৈরি করে। আপনি যদি প্রোপারলি ইন্টারনাল লিংক করতে পারেন, এটা আপনার ডোমেইনের DA, PA বাড়াতে সাহায্য করবে।

(২) আর্টিকেলে ইউনিক ছবি বা ইমেজ ব্যবহার করুন। আমরা অনেকেই কপিরাইট ফ্রি ইমেজ সাইট থেকে ইমেজ কালেক্ট করে তা সরাসরি আমাদের ওয়েবসাইটে ব্যবহার করি। এটা আসলে ঠিক না। কপিরাইট ফ্রি ইমেজ সাইট গুলোর প্রত্যেকটা ইমেজ হাজার হাজার মানুষ ব্যবহার করছে। তাই এই ইমেজগুলোতে কোনো ইউনিকনেস নেই।

আপনি যখন কোন কপিরাইট ফ্রি ওয়েবসাইট থেকে ইমেজ কালেক্ট করে আপনার সাইটে ব্যবহার করতে যাবেন তখন চেষ্টা করবেন যে, ইমেজগুলোকে সামান্য মডিফাই বা এডিট করে ইমেজের ইউনিকনেস বৃদ্ধি করতে। কেননা, ইউনিক ছবি বা ইমেজ গুগলের কাছে অত্যন্ত পছন্দের বিষয়। ইউনিক ইমেজ ভিজিটরদের আকর্ষণ বাড়ায় এবং এতে ওয়েবসাইটের DA, PA বৃদ্ধি হয়।

(৩) সার্চ ইঞ্জিনে আর্টিকেলের ভ্যালু তৈরি করতে অনপেজ এসইওর বিকল্প নেই। আপনার আর্টিকেলকে এমন ভাবে অনপেজ এসইও করুন, যেটা মানুষের দৃষ্টি কাড়বে। অর্থাৎ টাইটেল, সাব টাইটেল, রিলেটেড ইমেজ, ইন্টারনাল লিংক, এক্সটারনাল লিংক, মেটা ডেস্ক্রিপশন ভালো ভাবে অপটিমাইজ করুন। এটা আর্টিকেল উপস্থাপনের ক্ষেত্রে সার্চ ইঞ্জিনের কাছেও এডভান্টেজ তৈরি করবে। এতে আর্টিকেল সহজেই ইনডেক্স হবে এবং র‌্যাংক করবে। ওয়েবসাইটের ডোমেইন অথরিটি এবং পেজ অথরিটি বৃদ্ধিতে এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথাঃ

কোয়ালিটি ব্যাকলিংক এর মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইটের অথরিটি বৃদ্ধি পায়। ওয়েবসাইট অথরিটি বলতে DA, PA উভয়টির কথাই বলছি। আপনি নিজে কখনই লো কোয়ালিটি ব্যাকলিংক আপনার সাইটের জন্য তৈরি করবেন না। এই ব্যাকলিংকগুলো আপনার খুব বেশী কাজে আসবে না।

লো কোয়ালিটি হাজার হাজার ব্যাকলিংক দিয়েও ডোমেইন অথরিটি বাড়ানো সম্ভব না। এগুলোর কারণে ডোমেইন ক্ষতিগ্রস্থ হয়। তবে ডোমেইনের ব্যালেন্স ঠিক রাখার জন্য লো কোয়ালিটি ব্যাকলিংক কাজে লাগে। তবে এগুলো আপনাকে করতে হবে না। লো কোয়ালিটি ব্যাকলিংক আপনার ভিজিটরদের দ্বারা অটোমেটিক তৈরি হয়ে যাবে।

আমাদের পাঠকদেরকে আমি পার্সোনালি রিকোমেন্ট করি, আপনারা DA, PA বাড়ানোর প্রতিযোগিতার চেয়ে কোয়ালিটি কন্টেন্ট তৈরির প্রতি মনোযোগ দিন। তারপর সময় হলে ডোমেইন অথরিটি এবং পেজ অথরিটি বাড়ানোর জন্য কোয়ালিটি ব্যাকলিংক তৈরি করুন।

মনে রাখবেন, ডোমেইন এর DA, PA দিয়েই সবকিছু বিবেচনা করা যায় না। আপনার প্রয়োজন ভিজিটর। তবে ভিজিটর বা র‌্যাংকিংয়ের জন্য DA, PA অনেকটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এটাও সত্য যে, আপনার কন্টেন্ট কোয়ালিটি যদি ভালো নাহয়, তবে DA, PA দিয়ে কোন লাভ হবে না। তাই সবার আগে হাই কোয়ালিটি কন্টেন্ট তৈরি করার প্রতি জোর দিন।

এই বিষয়ে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে, তবে কমেন্টে জানিয়ে দিন। ধন্যবাদ

NAZIRUL ISLAM NAKIB

যত জ্ঞান-ধন করেছি অর্জন জীবনের প্রয়োজনে,
তার সবটুকুই বিলাতে চাই সৃষ্টির কল্যাণে।

Add comment