দোয়া কবুলের শর্ত

বিলাপ করে কান্না দোয়া কবুলের শর্ত নয়

বিলাপ করে কান্না দোয়া কবুলের শর্ত নয়: নিজের পাপের জন্য পরিতাপ করা ঈমানের একটি অংশবিশেষ। মানুষ মাত্রই ভুল করে থাকে। আর ভুল করে শোধরে নেয়ার বৈশিষ্টের প্রকৃত অধিকারী কেবলই মানুষ। মানুষ এবং জ্বীনজাতি ছাড়া কোন মাখলুকলই নিজের ভুলের প্রতি পরিপূর্ণ যত্নবান হতে পারে না। ’ভুল’ স্রষ্টার অসন্তুষ্টির কারণও বটে। ভুল করে যারা নমনীয় হয়ে স্রষ্টার কাছে ক্ষমা চায়, তারাই ঈমানদার।

ধর্ম মানেই একটি সুন্দর জীবন বিধান। যেটা অনুসরণীয় এবং অনুকরণীয়। ধর্মকে নিজের মতো ব্যবহার করা ঠিক নয়, বরং ধর্মীয় আদেশের প্রতি যত্নবান হওয়া জরুরি। স্রষ্টা প্রদত্ত জীবন-বিধান তথা একমাত্র গ্রহণযোগ্য ধর্ম ইসলাম। ইসলাম ধর্মের একটি সৌন্দর্য হলো কোন কিছুতেই সীমা অতিক্রম করা ঠিক নয়।

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর মুখ নিসৃত বাণী তথা বুখারী শরিফের একটি হাদিস থেকে জানতে পারি, প্রতিটি কর্মই নিয়তের উপর নির্ভর করে। দোয়াও একটি কর্ম বা ইবাদত। যেটার মাধ্যমে মানুষের পাপ মার্জনা হয়।

দোয়া কি?

দোয়া (دُعَاء‎‎ ) শব্দটি আরবি। যার বহুবচন আদ ইয়াহ (أدْعِيَة‎‎)। শব্দটির আক্ষরিক অর্থ ‘আহবান’ বা ‘ডাকা’, যা ইসলামে একটি বিশুদ্ধ মিনতি প্রক্রিয়া। সাধারণ ভাবে আমরা দোয়াকে প্রার্থনা বলে থাকি। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম দোয়াকে ইবাদতের সারাংশ বলেছেন।

কুরআন থেকেঃ

তোমাদের রব বলেছেন, তোমরা আমাকে ডাক, আমি তোমাদের ডাকে সাড়া দেব। নিশ্চয় যারা অহঙ্কার বশতঃ আমার ইবাদত থেকে বিমুখ থাকে, তারা অচিরেই লাঞ্ছিত অবস্থায় জাহান্নামে প্রবেশ করবে। (সূরা ৪০, আল-মু’মিন বা গাফির)।

তবে আমাদের সমাজে একটি কুসংস্কার আছে, বেশকিছু মানুষ একত্রে হয়ে ইলাক্ট্রনিক সাউন্ড ব্যবহার করে বিলাপ করে কান্না করে। অনেকেই এটাকে দোয়া কবুলের শর্ত মনে করেন। প্রকৃতপক্ষে এটি একটি কুসংস্কার।

দোয়া কবুলের শর্ত কি?

আমাদের সমাজে এমন রীতি প্রচলিত আছে যে, শবে কদর, শবে বরাত, ঈদ বা কোন মাহফিল অনুষ্ঠানে সকলেই একত্রিত হয়ে মাইক ব্যবহার করে হাউমাউ করে বিলাপ করে কান্না করে। এটা আসলে বাহ্যিক দিক দিয়ে ইসলামের একটি সৌন্দর্যকে মলিন করে দেয়। অন্য দৃষ্টিতে দেখলে এটাকে হতাশাগ্রস্তও বলা চলে। আর হতাশ হতে আল্লাহ নিষেধ করেছেন। বিষয়টিতে হয়ত অনেকেই একমত হবেন না, তবে এটা যার যার ব্যক্তিগত মতামত হতে পারে।

তবে মহান আল্লাহ অবশ্যই একাকী কান্নাকে পছন্দ করেন। যেটা সত্যিই পরিতাপের কান্না। এই কান্নাগুলোই উত্তম। নীরবে নির্জনে নিজের মনের আশা, আকাঙ্খা, পরিতাপসমূহ মহান আল্লাহর কাছে পেশ করা ইসলামের একটি সৌন্দর্যও বটে। তবে হ্যাঁ, আমি কখনই সম্মিলিত মোনাজাতের বিরুধী নই। আমি নিজেও সম্মিলিত মোনাজাত করি। তবে মাইক দিয়ে হাউমাউ করে বিলাপ করে কান্নাটা আমার পছন্দ নয়। এটা অবশ্য ব্যক্তিগত মতামত কেবল।

আমার মতো অনেকেই আছেন, বিষয়টিতে সাপোর্ট করবেন। আবার অনেকেই হয়ত বিষয়টিকে এড়িয়ে গিয়ে বিপরীত অবস্থানে কথা বলবেন। এটা যার যার অভিরুচি। তবে জ্ঞানহীন ভাবে এমন কিছু করা ঠিক হবে না, যেটার দ্বারা ইসলামের সৌন্দর্য মলিন হয়। মহান আল্লাহ আমাদের সবাইকেই সঠিক পথ প্রদর্শন করুন। ক্ষমা করুন। ঐক্যের পথে আবদ্ধ করুন। আমিন!

👉 ItNirman English

1 comment

error: Content is protected !!