Keyword Research কি? কিওয়ার্ড রিসার্চ কিভাবে করতে হয়?

Keyword Research কি? কিওয়ার্ড রিসার্চ কিভাবে করতে হয়?

প্রত্যেক ব্লগারদেরকে আর্টিকেল লেখার ক্ষেত্রে কিওয়ার্ড রিসার্চ করে আর্টিকেল লেখা উচিত। আপনি যদি ব্লগিং করেন তবে কিভাবে কীওয়ার্ড রিসার্চ করতে হয় তা অবশ্যই জানতে হবে।

নতুবা আপনি আপনার ব্লগিং ক্যারিয়ারে খুব বেশী এগোতে পারবেন না।

ইতোমধ্যেই যদি ব্লগিং শুরু করে থাকেন তবে অবশ্যই জানেন একটি আর্টিকেলকে সার্চ ইঞ্জিনে রেংক করিয়ে ট্রাফিক নিয়ে আসা কত প্রয়োজন।

ট্রাফিক ছাড়া ওয়েবসাইটের হাজার কন্টেন্টেরও কোন মূল্য নেই! অর্থাৎ, আপনার ওয়েবসাইটে যদি যথেষ্ট ভিজিটর না আসে তবে আর্টিকেল লিখে কি করবেন?

ওয়েবসাইট থেকেইবা আপনার কি ফায়দা হবে?

এই আর্টিকেলটি আমি Keyword Research এর উপর তৈরি করেছি। Keyword সংক্রান্ত সকল প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবো।

নতুনদের অনেকেই বুঝেননা কী ওয়ার্ড কি বা কী ওয়ার্ড কাকে বলে।

চলুন স্টেপ বাই স্টেপ কিওয়ার্ড রিসার্চ এর আদ্যোপান্ত জেনে নিই।

কিওয়ার্ড কি?

কিওয়ার্ড হলো এমন কোন শব্দ বা বাক্য, যা দিয়ে সাধারণ মানুষ সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করে।

বিষয়টি আরো সহজ ভাবে বললে মনে করুন, আপনি গুগলে গিয়ে সার্চ করলেনঃ iPhone 13 pro max price in Bangladesh.

এই যে আপনি একটি বাক্য লিখে গুগলে সার্চ করলেন, এই বাক্যটিকেই এসইও (SEO) এর ভাষায় Keyword বলা হয়।

কিওয়ার্ড এর বেশ কয়েকটি প্রকারভেদ রয়েছে।

প্রত্যেক ব্লগারকে জানা উচিত Keyword  কত প্রকার এবং কি কি।

নিচে কীওয়ার্ড এর সংক্ষিপ্ত ধারণা দেওয়া হলো।

কিওয়ার্ড কত প্রকার?

SEO তে সাধারণত Keyword কে ৯ টি ভাবে বিভিক্ত করা যায়।

  • Short-tail Keyword
  • Long-tail Keyword
  • Intent targeting Keywords
  • Product Defining Keyword
  • LSI Keyword
  • Short-term fresh Keyword
  • Long-term evergreen Keyword
  • Customer Defining keyword এবং
  • Geo-targeting Keyword ইত্যাদি।

এই কিওয়ার্ড গুলোর বিস্তারিত বর্ণনা অন্য একটি ডেডিকেটেড আর্টিকেলে প্রকাশ করা হবে ইনশাআল্লাহ।

একজন ব্লগার সাধারণত উপরোল্লিখিত সবগুলো কিওয়ার্ড একসাথে ব্যবহার করে না।

তবে ব্লগার হিসেবে এই কিওয়ার্ড গুলো সম্পর্কে জানা জরুরি।

কিওয়ার্ড রিসার্চ কি?

Keyword Research মানে কীওয়ার্ড গবেষণা পদ্ধতি।

এই পদ্ধতি ব্যবহার করে Keyword সম্পর্কে বিস্তারিত জানা হয়।

অর্থাৎ, আপনার কাঙ্খিত কিওয়ার্ডটি প্রতিমাসে গুগলে কতবার সার্চ হচ্ছে, কোন দেশ থেকে বেশী সার্চ হচ্ছে, সার্চ ভলিয়ম দিনদিন বাড়ছে নাকি কমছে এই বিষয়ে জানা হয়।

তাছাড়া, কিওয়ার্ড এর CPC এবং Keyword Difficulty কত এটাও জানার জন্য Keyword Research করা হয়।

একজন ব্লগার এর জন্য Keyword Research অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

কিওয়ার্ড রিসার্চ কেন এত গুরুত্বপূর্ণ?

২০২২ সালে এসে আমরা সকলেই ইন্টারনেটে বিভিন্ন কিওয়ার্ড লিখে সার্চ করি।

কীওয়ার্ড রিসার্চ করার মূল উদ্দেশ্য হলো প্রত্যেক মাসে একটি Keyword সার্চ ইঞ্জিনে কতবার মানুষেরা সার্চ করছে তা জানা।

মনে করুন, আপনি গুগলে সার্চ করলেন “How to Make Money Online”

এই যে একটি Keyword , এই কিওয়ার্ডটি দিয়ে শুধুমাত্র আপনিই ইন্টারনেটে সার্চ করেন না। আপনার মতো মিলিয়ন মানুষ প্রতি মাসে এই Keyword লিখে গুগলে সার্চ করছে।

আমি যে “ মিলিয়ন” সার্চ ভালিয়ম এর সংখ্যা উল্লেখ করলাম, তা আমি কিভাবে জেনেছি আপনার মনে প্রশ্ন আসতেই পারে।

“How to Make Money Online” কিওয়ার্ডটির মাসিক সার্চ ভলিয়ম জেনেছি  Keyword Research এর মাধ্যমে।

আর্টিকেল লেখার ক্ষেত্রে কিওয়ার্ড রিসার্চ কেন এত গুরুত্বপূর্ণ তা জেনে নেওয়া যাক।

আপনি যখন কোন বিষয়ে আর্টিকেল লিখতে যাবেন, শুরুতেই কীওয়ার্ড রিসার্চ করা জরুরি।

কেননা, আপনার আর্টিকেলটি এমন ভাবে লিখতে হবে যা সহজেই পাঠকের কাছে পৌঁছে যায় এবং সেই আর্টিকেলটি যেনো আপনার পাঠকেরা পড়তে পারে।

মনে করুন, আপনি Keyword Research না করে গ্রাফিক্স ডিজাইন এর উপর ২০০০ ওয়ার্ডের একটি আর্টিকেল লিখলেন।

আর আমি Keyword Research করে গ্রাফিক্স ডিজাইন এর উপরই ২০০০ ওয়ার্ডের একটি আর্টিকেল লিখলাম।

এই দুটি আর্টিকেলকেই যদি আপনি মাস শেষে পর্যালোচনা করে দেখেন, তবে নিশ্চিত ভাবে দেখতে পারবেন আপনার আর্টিকেলটি থেকে আমার লেখা আর্টিকেলটি ০-২০ গুণ বেশী পাঠক পড়েছে।

এর কারণ হলো আমি আর্টিকেলটি এমন কিছু কিওয়ার্ড ব্যবহার করে লিখেছি, যা লিখে মানুষেরা গুগলে সার্চ করে।

আমার আর্টিকেলে সেই সমস্ত কিওয়ার্ড থাকার কারণে গুগল অ্যালগরিদম তাদের রেজাল্ট পেজের প্রথম দিকে আমার আর্টিকেলটিকে শো করাচ্ছে।

আর ভিজিটরেরা সাধারণত সার্চ রেজাল্টের প্রথম রেজাল্টগুলোই পড়ে। এজন্যই আপনার তুলনায় আমার আর্টিকেলের পাঠক বেশী পাচ্ছি।

কিওয়ার্ড রিসার্চ কিভাবে করতে হয়?

Keyword রিসার্চ করার জন্য বিভিন্ন Tools রয়েছে।

প্রায় প্রত্যেকটি Tools এর আবার ফ্রি এবং পেইড ভার্সন রয়েছে।

ফ্রি ভার্সনে কিওয়ার্ড গুলোর বিস্তারিত বর্ণনা না থাকলেও মাসিক সার্চ ভলিয়ম দেখা যায়।

আপনার মূলত Keyword  এর সার্চ ভলিয়ম জানাই প্রয়োজন।

আমি আমার নিজের জন্যও ফ্রি চুলস দিয়ে Keyword  রিসার্চ করি।

আমার নিজস্ব অভিজ্ঞতা থেকে পর্যায়ক্রমে বেশ কয়েকটি টুলস এর মাধ্যমে কীওয়ার্ড রিসার্চ দেখিয়ে দেবো।

চলুন টুলস গুলোর নাম জেনে নিইঃ

  • Google Keyword Planner
  • Ahrefs
  • Ubersuggest
  • Keyword Surfer
  • google search suggestions

কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য এই তিনটি টুলস বেশ ভালো। টুলস গুলোর ব্যবহারিক পদ্ধতি নিম্নরূপঃ

১. Google Keyword Planner

Keyword Research করার জন্য গুগল কিওয়ার্ড প্লানার সর্বোচ্চ সাজেস্টেড।

কেননা, গুগলে কোন কীওয়ার্ড মাসে কতবার সার্চ হয় তা Google থেকে ভালো কেউ জানে না।

Keyword Planner Tools টি Google  এর নিজস্ব একটি ফ্রি টুলস।

বাংলা কিওয়ার্ড রিসার্চএই টুলসটি ব্যবহার করে যে কোন কিওয়ার্ড এর মাসিক সার্চ ভলিয়ম সহজেই বের করা যায়।

Tools টির বড় একটি সুবিধা হলো আপনার টার্গেটেড Country সিলেক্ট করে অথবা পুরো বিশ্বকে সিলেক্ট করে কিওয়ার্ড এর ভলিয়ম দেখতে পারবেন।

স্ক্রিনশর্টটিতে দেখুন গুগল কিওয়ার্ড প্লানার এর মাধ্যমে “iPhone 13 pro max” লিখে সার্চ করেছি।

কাঙ্খিত এই কিওয়ার্ড এর মাসিক সার্চ ভলিয়ম হলো 1 Millions – 10 Millions বার।

পাশাপাশি Google Keyword Planner Tools টি নিচে কিছু রিলেটেড কিওয়ার্ড দেখাচ্ছে এবং সেই কিওয়ার্ড গুলোরও সার্চ ভলিয়ম দেখাচ্ছে।

আপনার আর্টিকেল এর মেইন বা ফুকাস কিওয়ার্ড যদি iPhone 13 pro max হয় তবে নিচের কীওয়ার্ডগুলোকে LSI বা সাব কিওয়ার্ড হিসেবে নিতে পারেন।

প্রত্যেকটি কিওয়ার্ড এর Competition দেখাচ্ছে।

সবসময় চেষ্টা করবেন এমন কিওয়ার্ড বাছাই করার জন্য যেই Keyword  এর সার্চ ভলিয়ম বেশী তবে Competition হবে Low.

ওয়েবসাইট নতুন হলে Medium বা High Competition Keyword নিয়ে কাজ করা সবার জন্যই অনুচিৎ।

Google Keyword Planner Tools এর শুধুমাত্র যে ইংরেজি কি ওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন তা কিন্ত নয়, আপনি চাইলে বাংলা কিওয়ার্ড রিসার্চ করতেও পারবেন।

তাছাড়া যে কোন ভাষার Keyword গুগল কিওয়ার্ড প্লানারে রিসার্চ করা যায়।

২. Ahrefs

এই টুলসটি বেশীর ভাগ ব্লগারের Keyword Research এর ক্ষেত্রে সবচেয়ে ফেভারিট টুলস।

আমিও পার্সোনালি এই টুলসটি ব্যবহারে স্বাচ্চন্দ্যবোধ করি।

একটি হয়ত লক্ষ্য করবেন Google Keyword Planner Tools এর মাধ্যমে কীওয়ার্ড এর সার্চ ভলিয়ম নির্দিষ্ট একটি সংখ্যায় দেখায় না।

তারা আনুমানিক ভাবে 1 Millions থেকে 10 Millions বা এভাবে দেখায়।

কিন্তু Ahrefs টুলসে একটি নির্দিষ্ট সংখ্যায় কীওয়ার্ড এর সার্চ ভলিয়ম দেখায় এবং এই তাদের দেওয়া কিওয়ার্ড গুলো আমার কাছে শতভাগ ব্যবহারযোগ্য মনে হয়।

কিওয়ার্ড রিসার্চ কিভাবে করতে হয়

Ahrefs Free Keyword Generator Tools এর মাধ্যমে আপনি যে কোন দেশ সিলেক্ট করে কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন।

এই টুলসটিতেও Bangla Keyword Research করা যায়। আমি সাধারণত এই টুলসটিই বেশীভাগ ক্ষেত্রে ব্যবহার করি।

আমার পার্সোনাল এক্সপেরিয়েন্স থেকে Ahrefs কে সবচেয়ে সহজ ও অত্যন্ত ইউজার ফ্রেন্ডলি মনে হয়।

তাদের দেওয়া Data গুলো অন্যান্য টুলস থেকে অনেকটা একুরেট ও ব্যবহার যোগ্য।

Ahrefs এর ফ্রি ভার্সনেই Keyword এর অনেক চমৎকার Data প্রদান করে।

আপনি যদি তাদের পেইড ভার্সনটি চালাতে পারেন, তবে হয়ত আপনার চোখে Keyword Research করার জন্য আর কোন টুলসের প্রয়োজনবোধ করবেন না।

৩. Ubersuggest

কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য Ubersuggest টুলসটিও বেশ জনপ্রিয়।

উবার সাজেস্ট টুলসটির ফ্রি ভার্সনে প্রতিদিন ৩ কিওয়ার্ড এর বেশী রিসার্চ করতে দেয় না।

তবে আপনি যদি ব্রাউজার পরিবর্তন করে করে Ubersuggest এর মাধ্যমে কীওয়ার্ড গবেষণা করেন তবে ফ্রিতেই Keyword এর অনেক ভালো Data পেয়ে যাবেন।

কিওয়ার্ড রিসার্চ কিUbersuggest এর ফ্রি ভার্সন থেকে যদিও একদিনে খুব বেশী Keyword Research করতে পারবেন না।

তবে প্রতিদিন যে ৩ টি কিওয়ার্ড এর ডাটা পাবেন, সেটা অনেক নির্ভরযোগ্য ডাটা এবং কাজ করার মতো।

Ubersuggest টুলসের কিওয়ার্ড সাজেশন দেখায়, পাশাপাশি CPC ও Trends দেখায়।

তবে আপনি যদি তাদের পেইড ভার্সন ব্যবহার করেন তবে আপনাকে Keyword সম্পর্কে বিস্তারিত বিষয়দি দেখাবে।

তাছাড়া, Ubersuggest এর একটি chrome extension আছে, আপনি যদি গুগলে গিয়ে “ubersuggest chrome extension” লিখে সার্চ করেন তবে পেয়ে যাবেন।

বাংলা কিওয়ার্ড রিসার্চ“ubersuggest chrome extension” টি যদি আপনার ক্রোম ব্রাউজারে এক্টিভ থাকে তবে আপনি যে কোন কিওয়ার্ড লিখে গুগলে সার্চ করবেন, সেই কিওয়ার্ড এর ভলিয়ম ব্রাউজারের ডানপাশে আপনাকে দেখানো হবে।

ম্যানুয়ালি কিওয়ার্ড রিসার্চ না করেও ubersuggest chrome extension এর মাধ্যমে আপনি ফ্রিতেই গুগলের সার্চ পেজ থেকে হাজার হাজার কিওয়ার্ড পেয়ে যাবেন।

৪. Keyword Surfer

কিওয়ার্ড সার্ফার মূলত একটি Google Chrome extension.

এটির মাধ্যমেও খুব সহজে অনেক ভালো ভালো কিওয়ার্ড পাওয়া যায়।

আপনি যদি গুগলে সার্চ করেন keyword surfer chrome extension, তবেই এটি পেয়ে যাবেন।

আপনার কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ এর Google Chrome Browser এর মাধ্যমে এই extension টি এক্টিভ করে নিন।

কিওয়ার্ড রিসার্চ কিভাবে করতে হয়“keyword surfer chrome extension” টি আপনার ব্রাউজারে এক্টিভ করার পর গুগলে আপনি যে কোন কিওয়ার্ড লিখে সার্চ করবেন, ব্রাউজারের ডানপাশে সেই কিওয়ার্ড এর সার্চ ভলিয়ম দেখাবে।

পাশাপাশি আরো বিভিন্ন রিলেটেড কিওয়ার্ডও দেখাবে।

এভাবে আপনি খুব সহজেই যে কোন কিওয়ার্ড এর সার্চ ভলিয়ম খুঁজে বের করতে পারবেন।

৫. google search suggestions

অতি সহজে কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য google auto suggest tool বা google search suggestions নিয়মটি খুবই ভালো।

এটি আলাদা কোন extension বা Tools না।

আপনি যে কোন ব্রাউজার ব্যবহার করে অতি অল্প সময়েই বিভিন্ন কিওয়ার্ড জেনারেট করতে পারবেন।

তবে হ্যাঁ, google auto suggest পদ্ধতিতে কিওয়ার্ড এর সার্চ ভলিয়ম দেখায় না।

কী ওয়ার্ড কাকে বলে
কী ওয়ার্ড কাকে বলে

উপরের স্ক্রিনশর্টটি লক্ষ্য করুন, আমি যখন ব্রাউজারে সার্চ করলাম “এসইও কি” তখন নিজে কিছু সাজেশন কিওয়ার্ড চলে এসেছে।

এই কিওয়ার্ড গুলো দিয়েই মানুষেরা গুগলে সার্চ করে।

ইউজারদের সার্চ এক্সপেরিয়েন্স ভালো করার জন্যই মূলত google search suggestions দেখায়।

এই সার্চ সাজেশনে যেই কিওয়ার্ড গুলো দেখানো হয়, আপনি নিশ্চিন্তে সেই কিওয়ার্ড গুলো নিয়ে কাজ করতে পারেন।

তবে আপনি  চাইলে google search suggestions এর কিওয়ার্ড গুলোকে সংগ্রহ করার পর Ahrefs বা Google Keyword Planner Tools এর সাহয্যে সার্চ ভলিয়ম বের করতে পারবেন।

শেষ কথাঃ

আপনি যদি একজন ব্লগার হন বা ব্লগিং নিয়ে কাজ করতে চান অথবা আর্টিকেল এর মাধ্যমে অনলাইন মার্কেটিং করতে চান, তবে অবশ্যই আপনাকে কিওয়ার্ড রিসার্চ এর মাধ্যমে কাজ করতে হবে।

এসইও টার্ম গুলোর মধ্যে কীওয়ার্ড গবেষণা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কোন ভাবেই যেটা এড়িয়ে যাওয়া উচিত হবে না।

Keyword Research ছাড়া ব্লগিং ক্যারিয়ারটা পুরোই মূল্যহীন! এটা এজন্য যে, আপনি যদি কিওয়ার্ড দিয়ে আর্টিকেলকে অপটিমাইজ না করেন, তবে আপনার আর্টিকেল সার্চ ইঞ্জিনে রেংক করার সম্ভাবনা প্রায় শূন্যের কোঠায়।

আর এটাও মানতে হবে আর্টিকেল রেংক না করলে ওয়েবসাইটে ভিজিটর আসবে না। আর ভিজিটর না আসলে ব্লগিং থেকে ইনকাম করা সম্ভব না।

এভাবে ব্লগিং নিয়ে টিকে থাকার প্রশ্নও আসে। তাই আপনাকে আর্টিকেল লেখার ক্ষেত্রে কিওয়ার্ড রিসার্চ করা আবশ্যক।

প্রিয় পাঠক, আমি আশা করছি Keyword Research এর আদ্যোপান্ত এই আর্টিকেল থেকে আপনি জানতে পেরেছেন।

আপনার যদি এই বিষয়ে কোন প্রশ্ন থাকে তবে অবশ্যই কমেন্ট করতে ভুলবেন না।

পরবর্তী কোন আর্টিকেলে কিওয়ার্ড কত প্রকার এবং কিওয়ার্ড স্টাফিং নিয়ে আলোচনা করবো ইনশাআল্লাহ। সেই পর্যন্ত সবাইকেই মহান আল্লাহ ভালো রাখুন, সুস্থ রাখুন।

NAZIRUL ISLAM NAKIB

যত জ্ঞান-ধন করেছি অর্জন জীবনের প্রয়োজনে,
তার সবটুকুই বিলাতে চাই সৃষ্টির কল্যাণে।

2 comments

error: Content is protected !!