মোবাইল এন্টিভাইরাস অ্যাপস

সেরা ১০ টি মোবাইল এন্টিভাইরাস অ্যাপস

মোবাইল ব্যবহার করতে গিয়ে বিভিন্ন অসতর্কতার কারণে অনেক সময় মোবাইলটি ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যায়। ফলে আমাদের গুরুত্বপূর্ণ অনেক ডেটা চুরি হয়ে যায় অথবা হারিয়ে ফেলি। এই ধরণের অনাকাঙ্খিত সমস্যা হতে বাঁচতে মোবাইল এন্টিভাইরাস অ্যাপস খুবই কার্যকরী।

প্রযুক্তির এই যুগে আমাদের প্রায় সবার হাতেই এক বা একাধিক এন্ড্রোয়েড মোবাইল অথবা স্মার্টফোন রয়েছে। ডিজিটাল এই ডিভাইসটির নানাবিধ ব্যবহারে আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনের বিভিন্ন চাহিদা মেঠাই।

ইন্টারনেট ব্রাউজ করা থেকে শুরু করে অ্যানিমেশন, অডিও, ভিডিও দেখা এবং ডিজিটাল ব্যাংকিং সেবাও আমরা মোবাইল দিয়ে ব্যবহার করি।

কিন্তু আপনি কি জানেন আপনার হাতের স্মার্টফোনটি দিয়ে ইন্টারনেট চালাতে গিয়ে বিভিন্ন ভাবে স্মাটফোনটি ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে।

একটি স্মার্টফোন যখন ভাইরাসে আক্রান্ত হয় তখন ব্যবহারকারীর প্রাইভেসি বিভিন্নভাবে ঝুঁকিতে পড়ে যায় এবং এটি এক সময় বড় সমস্যার সৃষ্টি করে। এই ধরণের সমস্যা ও ঝুঁকি এড়াতে এন্টিভাইরাস খুবই কাজে দেয়।

নিচে বেশ কয়েকটি এন্টিভাইরাসের নাম এবং ডাউনলোড লিংকসহ শেয়ার করা হয়েছে। তবে তার আগে আপনাকে জানতে হবে মোবাইল এন্টিভাইরাস অ্যাপস কেন ব্যবহার করা হয়।

ভাইরাস প্রতিরোধে এন্টিভাইরাস এর গুরুত্ব বিশ্লেষণ

প্রথমেই ভাইরাসের সংজ্ঞা জানা জরুরি।

ভাইরাস (Virus) শব্দের মূল অর্থ হলো জীবাণু। যেটা ব্যাকটেরিয়ার চেয়েও অনেক ছোট। জীবদেহে এটি রোগ সৃষ্টি করে।

ভাইরাস সাধারণত দুই প্রকারের হয়, একটি ইলেক্ট্রনিক ভাইরাস অপরটি জীবদেহের ভাইরাস।

ইলেক্ট্রনিক ভাইরাসটি মূলত কম্পিউটার, ল্যাপটপ এবং মোবাইল সহ বিভিন্ন ডিজিটাল ডিভাইসে সক্রিয় হয়ে কাঙ্খিত সেই ডিভাইসকে ক্ষতিগ্রন্থ করে।

কম্পিউটার অথবা মোবাইলের উপাত্ত ধ্বংসের এক গুপ্ত সাংকেতিক নির্দেশকে ভাইরাস বলা হয়।

আমরা সাধারণত অসুস্থ হই বিভিন্ন ভাইরাস বা জীবাণুর আক্রমণে। আবার এর থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য বিভিন্ন ওষুধ সেবন করি। এখানে ওষুধটা হলো এন্টি জীবাণু  বা অসুখের প্রতিবোধ্য ব্যবস্থা।

ঠিক একই ভাবে কোন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ভাইরাসে আক্রান্ত হলে তার জন্য এন্টিভাইরাস বা ভাইরাসের প্রতিরোধ ব্যবস্থা সক্রিয় করতে হয়।

এটাকেই প্রযুক্তি ও কম্পিউটারের ভাষায় এন্টিভাইরাস বলা হয়।

মোবাইল এন্টিভাইরাস ব্যবহারের সুবিধা

আপনি যখন আপনার মোবাইল ফোনটিতে এন্টিভাইরাস অ্যাপস ইনিস্টল করবেন তখন মনে করবেন আপনার মোবাইলে একটি সিকিউরিটি সিস্টেম চালু করেছেন।

যেটার মাধ্যমে আপনার মোবাইলটি বিভিন্ন ভাইরাস এবং অনাকাঙ্খিত হ্যাকিং অনিষ্ট থেকে নিরাপদ হয়ে গেলো।

আমার মতে ভাইরাস জনিত ক্ষতি এড়াতে প্রত্যেকটা মোবাইলেই আগে থেকেই এন্টিভাইরাস ব্যবহার করা উচিত।

মোবাইল ভাইরাস কিভাবে ক্ষতি করে?

ইলেক্ট্রনিক ভাইরাস বিভিন্ন প্রকারের হয়। তবে সব ধরণের ভাইরাসই ক্ষতির কারণ।

একটি মোবাইল ভাইরাসে আক্রান্ত হলে সাধারণ ভাবে মোবাইলটি যেই ধরণের ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে তা নিম্নরূপঃ

() মোবাইলটি স্লো হয়ে যাবে এবং অনেক সময় হ্যাং করবে।

(২) মোবাইলে চার্জ কম থাকবে এবং মোবাইল অতিরিক্ত গরম হয়ে যাবে।

(৩) মোবাইলের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য যেমন, ছবি, অডিও, ভিডিও ইত্যাদি নষ্ট হয়ে যাবে অথবা গায়েব হয়ে যাবে।

(৫) মোবাইলে লগইন থাকা বিভিন্ন একাউন্ট / আইডি হ্যাক হয়ে যাবে এবং পরবর্তীতে তা ব্র্যাকমেইল বা এই জাতীয় কিছু অনাকাঙ্খিত সমস্যায় পড়তে হবে।

এগুলো ছাড়াও ভাইরাস বিভিন্ন ভাবে ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস থেকে ইউজারদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য নষ্ট করে দেয় অথবা তথ্য হাতিয়ে নিয়ে এর অপব্যবহার করে।

ভাইরাস মূলত হ্যাকার, স্ক্যামার বা স্প্যামারদের তৈরি এক ধরণের গুপ্ত সাংকেতিক নির্দেশ যা কম্পিউটার অথবা মোবাইলের উপাত্তকে ধ্বংস করে দেয়।

আর এর প্রতিরোধ মূলক ব্যবস্থা হিসেবে এন্টিভাইস ব্যবহার করা হয়। এন্টিভাইরাস ব্যবহারের সুবিধা বলে শেষ করা যাবে না।

যাইহোক, অবশ্যই এই ধরণের সমস্যা থেকে বাঁচার জন্য মোবাইল এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার আগে থেকে ব্যবহার করা শ্রেয়।

১০ টি এন্টিভাইরাসের নাম

আমরা প্রতিদিন বিভিন্ন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করি, প্রয়োজনের তাকিদে বিভিন্ন ধরণের ফাইল ডাউনলোডও করি।

অনেক সময় ওয়েবসাইটের লিংকে ক্লিক করলেই মোবাইলে ভাইরাস প্রবেশ করে, আবার অনেক ক্ষেত্রে কোন ফাইল ডাউনলোড করার সময় ফাইলের সাথে ভাইরাসও ডাউনলোড হয়।

এভাবেই মূলত আমাদের মোবাইলে ভাইরাস প্রবেশ করে।

ইন্টারনেটে কী পরিমাণ ভাইরাস ছড়ানো আছে তার নির্দিষ্ট কোন সংখ্যা কেউ বলতে পারবে না। মোবাইল প্রায় ৯০ শতাংশ ভাইরাসে আক্রান্ত হয় ইন্টারনেট থেকে।

আমি এখন ০ টি সেরা মোবাইল এন্টিভাইরাস আপনাদের সাথে শেয়ার করবো। যেগুলো ব্যবহার করলে আপনার ইন্টারনেট যাত্রা অনেক সিকিউর হবে।

কোন এন্টিভাইরাস অ্যাপস যখন আপনার মোবাইলে ইনিস্টল থাকবে, তখন আপনি যদি কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন বা কোন কিছু ডাউনলোড করেন, তখন ইন্টারনেটে থাকা ক্ষতিকর জিনিস গুলো আপনার মোবাইলে প্রবেশ করতে পারবে না।

আবার কোন ভাবে যদি মোবাইলে ভাইরাস প্রবেশ হয়েও যায়, তবুও আপনি Antivirus দিয়ে Scan করে সেই সমস্ত ভাইরাস রিমুভ বা ডিলেট করতে পারবেন।

চলুন এবার এক এক করে সবচেয়ে ভালো এন্টিভাইরাস গুলোর সাথে পরিচিতি হই।

১. AVG AntiVirus & Security

এভিজি এন্টিভাইরাস ডাউনলোড
এভিজি এন্টিভাইরাস ডাউনলোড

AVG ফ্রি অ্যান্টিভাইরাসটি ক্ষতিকারক ভাইরাস এবং ম্যালওয়্যার থেকে আপনার মোবাইলকে রক্ষা করতে সাহায্য করবে।

100,000,000 এরও বেশি মানুষ ইতিমধ্যেই AVG অ্যান্টিভাইরাসটি মোবাইল নিরাপত্তা অ্যাপ হিসেবে ইনস্টল করেছে।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 7,384,190 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.6★★★★★ নিয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় মোবাইল এন্টিভাইরাস এটি।

অ্যাপসটির সাধারণ বৈশিষ্ট্য:

সুরক্ষা:

✔ AVG অ্যান্টিভাইরাস দিয়ে অ্যাপস, গেম এবং ফাইল স্ক্যান করা হয় এবং মোবাইল থেকে ক্ষতিকারক কন্টেন্ট সরিয়ে দেওয়া হয়।

✔ কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার সময় ক্ষতিকারক কিছু আছে কিনা তা স্ক্যান করা হয় এবং শনাক্ত করতে পারলে তা প্রতিরোধ করা হয়। তাছাড়া, ডিজিটাল ব্যাংকিং বা অনলাইন লেনদেনকে নিরাপদ রাখে।

✔ নেটওয়ার্ক এনক্রিপশনের জন্য Wi-Fi স্ক্যানার হিসেবেও ব্যবহার করা যায়।

✔ হ্যাক সতর্কতা দেয়। মোবাইলের কোন একাউন্ট পাসওয়ার্ড কোন ভাবে চুরি হলে আপনাকে সতর্ক করবে।

গোপনীয়তা:

✔ অ্যাপ লক: আপনার মোবাইলের গোপনীয়তা এবং নিরাপত্তা রক্ষা করার জন্য যে কোন অ্যাপসকে লক করতে পারবেন।

✔ VPN সুরক্ষা: আপনার অনলাইন গোপনীয়তা সুরক্ষা নিশ্চিত করতে তাদের ভিপিএন ফ্রিতেই ব্যবহার করতে পারবেন।

✔ অ্যাপ অনুমতি: আপনার মোবাইলে ইনিস্টল করা অ্যাপস গুলোকে প্রতিনিয়তই এভিজি এন্টিভাইরাস পর্যাবেক্ষণ করবে।

কর্মক্ষমতা:

✔ আপনার মোবাইল বা ট্যাবলেটকে স্লো করে দিতে পারে এমন কোন ক্ষতিকারক জিনিস মোবাইল থেকে ডিলেট করা দেওয়া হবে।

✔ অপ্রয়োজনীয় ফাইল ডিলেট করে এবং মোবাইলের মেমোরি স্টোরেজ স্পেস খালি করে।

✔ Wi-Fi ডাউনলোড এবং আপলোড গতি পরীক্ষা করা যায়।

চুরি বিরোধী:

AVG এর রিমোট ম্যানেজমেন্ট কনসোল এটি অত্যন্ত চমৎকার একটি ফিচার।

✔ আপনার মোবাইলে যদি AVG ইনিস্টল থাকে এবং যদি মোবাইলটি হারিয়ে যায়, তবে গুগল ম্যাপের মাধ্যমে আপনার হারিয়ে যাওয়া বা চুরি হওয়া ফোনটির লোকেশন সনাক্ত করতে পারবেন।

✔ AVG এর মাধ্যমে আপনার মোবাইলকে লক করতে পারবেন এবং একটি লক স্ক্রীন মেসেজ সেট করতে পারবেন। চোর যদি মোবাইলের লক খুলতে চেষ্টা করে তবে আপনার কাছে মোবাইল নাম্বার বা ইমেইলে অটোমেটিক মেসেজে পাঠানো হবে।

✔ AVG এন্টিভাইসের মাধ্যমে আপনার মোবাইলে একটি সাইরেন সিকিউরিটি সেট করতে পারবেন। মোবাইল কেউ ধরলেই শব্দ করবে।

হ্যাক সতর্কতা:

✔ আপনার মোবাইলের কোন একাউন্ট হ্যাক হয়েছে কিনা তা AVG এন্টিভাইসের মাধ্যমে জানতে পারবেন।

✔ যদি কেউ নতুন ভাবে হ্যাক করতে চায় বা মোবাইলের ডেটা যদি ঝুঁকির মধ্যে থাকে তবে আপনাকে সতর্ক করা হবে।

✔ যদিও কখনও মোবাইল হ্যাক হয়, তবে আপনাকে হ্যাকের বিবরণ জানানো হবে এবং কখন হ্যাক হয়েছে কেন হয়েছে তা জানতে পারবেন।

এগুলো হলো এভিজি এন্টিভাইরাসটির ফিচার। এগুলো ছাড়াও আরো অনেক ফিচার এই অ্যাপসটিতে বিদ্যমান। মোবাইল এন্টিভাইরাস অ্যাপস গুলোর মধ্যে এই অ্যাপটি খুবই কার্যকরী।

ফিশিং আক্রমণ এবং দূষিত ওয়েবসাইট থেকে রক্ষা করতে আপনাকে বিভিন্ন ভাবে তারা প্রোটেক্ট করবে।

ডাউনলোড করুনঃ AVG AntiVirus & Security

২. Kaspersky Security & VPN

ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাস
ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাস ডাউনলোড

ক্যাসপারস্কি এন্টি ভাইরাস আপনার মোবাইল এবং ট্যাবলেটগুলিকে বিভিন্ন ক্ষতিকারক জিনিস থেকে সুরক্ষিত রাখতে সাহায্য করে।

50,000,000+ এরও বেশি মানুষ ইতিমধ্যেই ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাসটি মোবাইল নিরাপত্তা অ্যাপ হিসেবে ইনস্টল করেছে।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 3,819,415 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.7★★★★★ নিয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় মোবাইল এন্টিভাইরাস এটি।

অ্যাপসটির সাধারণ বৈশিষ্ট্যঃ

✔ ক্যাসপারস্কি সিকিউরিটি এন্টিভাইসটি ভাইরাস ক্লিনার এবং স্ক্যানার হিসাবে কাজ করে।

✔ Kaspersky আপনার মোবাইল বা ট্যাবলেটে ইনিস্টল থাকলে অটোমেটিক ভাবে ম্যালওয়্যার, ভাইরাস, স্পাইওয়্যার এবং আরও অনেক কিছু ব্লক করে দেয়।

✔ Kaspersky আপনার স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটে ইনিস্টল থাকাকালীল ফোনটি হারিয়ে গেলে বা চুরি হয়ে গেলে ট্র্যাক করতে এবং সনাক্ত করতে পারবেন।

তাছাড়া, ক্যাসপারস্কি এন্টি ভাইরাস এর রিমোট ম্যানেজমেন্ট ব্যবহার করে আপনার ডিভাইসে একটি অ্যালার্ম সেট করতে পারবেন, সেটা সব সময় বাজতে থাকবে। এতে চোর আতংকে পড়ে যাবে।

দূরে থেকেও আপনি আপনার মোবাইলের সমস্ত ডেটা ডিলেট করে দিতে পারবেন, এতে করে চোর আপনার ডেটা এক্সেস করতে পারবে না। এমনকি যার কাছে আপনার মোবাইলটি রয়েছে, ইচ্ছে করলেই তার একটি ছবি তুলে চোরকে শনাক্ত করতে পারবেন।

✔ মোবাইলের ব্যাকগ্রাউন্ডে থাকা সমস্ত অ্যাপস এবং ফাইলে থাকা ভাইরাস, স্পাইওয়্যার, র‍্যানসমওয়্যার এবং ট্রোজানগুলির চাহিদা অনুযায়ী রিয়েল-টাইমে স্ক্যান করে।

✔  আপনার ব্যক্তিগত তথ্যকে চোরদের হাত থেকে রক্ষা করে।

✔ আপনার ইমেলে বা মোবাইলের যে কোন মেসেজে কেউ যদি বিপজ্জনক ফিশিং লিঙ্ক পাঠায় তবে আপনাকে তারা সতর্ক করবে।

✔ ইন্টানেটে কোন কাজ করার সময় বিপজ্জনক লিঙ্ক, ভাইরাস যুক্ত ফাইল ডাউনলোড এবং ক্ষতিকারক ওয়েবসাইট ব্লক করে দেবে।

✔ Kaspersky VPN আপনার আইপি প্রাইভেসিকে রক্ষা করে।

✔ যখন ক্যাসপারস্কি সিকিউরিটির প্রতিরক্ষা প্রযুক্তি ম্যালওয়্যার, স্পাইওয়্যার বা অন্যান্য ক্ষতিকারক জিনিস শনাক্ত করে, তখন অ্যান্ড্রয়েডের জন্য ক্যাসপারস্কি এন্টিভাইরাসটি ভাইরাস ক্লিনার হিসেবে কাজ করে।

ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাস এর সাথে VPN বা ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক সবাই ব্যবহার করতে পারবে না।

VPN ব্যবহারে আইনি বিধিনিষেধের কারণে, Kaspersky অ্যাপসটি বেলারুশ, চীন, সৌদি আরব, ইরান, ওমান, পাকিস্তান এবং কাতারে ইনস্টল করা যাবে না।

যাইহোক, মোবাইল এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে Kaspersky অনেক জনপ্রিয় একটি সফটওয়্যার।

ডাউনলোড করুনঃ Kaspersky Security & VPN

৩. Avast Antivirus & Security

অ্যাভাস্ট অ্যান্টিভাইরাস অ্যাপস /সফটওয়্যার ডাউনলোড
অ্যাভাস্ট অ্যান্টিভাইরাস অ্যাপস ডাউনলোড

অ্যাভাস্ট অ্যান্টিভাইরাসটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের সকল ভাইরাস এবং ম্যালওয়্যার থেকে ইউজারকে সুরক্ষা দেয়। এই অ্যাপসটি ইন্টারনেট সিকিউরিটিতে বেশ কার্যকরী বলে এটাকে “অ্যাভাস্ট ইন্টারনেট সিকিউরিটি” নামেও ডাকা হয়।

100,000,000+ এরও বেশি মানুষ ইতিমধ্যেই অ্যাভাস্ট মোবাইল অ্যান্টিভাইরাসটি মোবাইলের নিরাপত্তা অ্যাপ হিসেবে ইনস্টল করেছে।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 6,877,164 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.5★★★★★ নিয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় মোবাইল এন্টিভাইরাস এটি।

Avast অ্যাপসটির সাধারণ বৈশিষ্ট্য:

✔ অ্যান্টিভাইরাস ইঞ্জিন: স্পাইওয়্যার, ট্রোজান, ভাইরাস এবং অন্যান্য ম্যালওয়ারের বিরুদ্ধে স্বয়ংক্রিয়ভাবে অ্যাপসি প্রতিনয়তই আপনার মোবাইলকে অটোমেটিক স্ক্যান করবে।

✔ ইন্টারনেট সিকিউরিটি: আপনি যখন কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন বা কোন ফাইল ডাউনলোড করবেন তখন অ্যাপটি তা স্ক্যান করবে এবং মোবাইলে ইনিস্টল থাকা সমস্ত অ্যাপ স্ক্যানিং করে ক্ষতিকারক জিনিস রিমুভ করার মাধ্যমে মোবাইলকে সুরক্ষিত রাখবে।

✔ জাঙ্ক ক্লিনার: মোবাইলে থাকা অপ্রয়োজনীয় ডেটা, জাঙ্ক ফাইল, সিস্টেম ক্যাশে, গ্যালারী থাম্বনেইল, ইনস্টলেশন ফাইল এবং মেমোরিতে অবশিষ্ট অপ্রয়োজনীয় ফাইল ডিলেট করার মাধ্যমে মোবাইলের স্পেস বাড়াতে পারবেন।

✔ ওয়াই-ফাই নিরাপত্তা: আপনি যখন পাবলিক ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেন, তখন এই অ্যাপটির মাধ্যমে নিরাপদে ব্রাউজ করতে পারবেন এবং যেকোনো জায়গা থেকে নিরাপদ অনলাইন পেমেন্ট বা মোবাইল ব্যাংকিং করতে পারবেন।

✔ ওয়েব শিল্ড: ম্যালওয়্যার-সংক্রমিত ওয়েবসাইটের লিঙ্ক স্ক্যান করতে পারবেন এবং ক্ষতিকারক লিংক ব্লক করা যাবে।

✔ অ্যাপ লক: অ্যাভাস্ট অ্যান্টিভাইরাসটির সাহায্যে মোবাইলের যে কোন অ্যাপসকে লক করা যাবে। লক করার পদ্ধতি হলো  পিন কোড, প্যাটার্ন, ফিঙ্গারপ্রিন্ট বা পাসওয়ার্ড ইত্যাদির মাধ্যমে।

আপনি ছাড়া লক করা জিনিস কেউ অ্যাক্সেস করতে পারবেন না। এতে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য ০০% সুরক্ষিত থাকবে।

✔ হ্যাক সতর্কতা: অ্যাভাস্ট মোবাইল অ্যান্টিভাইরাস এর মাধ্যমে দ্রুত এবং সহজ স্ক্যানের মাধ্যমে আপনার মোবাইলের কোন পাসওয়ার্ড ফাঁস হয়েছে কিনা তা সহজেই দেখতে পারবেন।

পাশাপাশি কখনো যদি হ্যাকাররা আপনার মোবাইলে থাকা কোন একাউন্টের পাসওয়ার্ড হ্যাক করে অ্যাকাউন্টে অনুপ্রবেশ করার চেষ্টা করে তবে আপনি তা জানতে পারবেন।

✔ RAM বুস্ট: আপনার মোবাইলের RAM কে সর্বদায় পরিস্কার রাখবে।

✔ ওয়াই-ফাই স্পিড টেস্ট: আপনার মোবাইলে যখন ইন্টারনেট ইউজ করবেন তখন ইন্টারনেট স্পিড কত তা এই অ্যাপসটির মাধ্যমে জানতে পারবেন।

✔Avast এর নিজস্ব VPN (ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক) রয়েছে, যা অ্যাপসির মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারবেন।

এগুলো ছাড়াও অ্যাভাস্ট অ্যান্টিভাইরাস আপনাকে বিভিন্ন ভাবে সিকিউরিটি প্রদান করবে।

ডাউনলোড করুনঃ Avast Antivirus & Security

৪. Safe Security – Antivirus, Booster, Phone Cleaner

সবচেয়ে ভাল এন্টিভাইরাস
সবচেয়ে ভাল এন্টিভাইরাস

Safe Security অ্যান্টিভাইরাসটি মোবাইলের স্পিড বুস্ট করে, জাঙ্ক ক্লিন করে, অ্যান্টি স্পাইওয়্যার এবং ভাইরাস রিমুভার সহ Android ফোনের সুরক্ষা প্রদান করে।

100,000,000+ এরও বেশি মানুষ ইতিমধ্যেই Safe সিকিউরিটি নামক মোবাইল অ্যান্টিভাইরাসটি মোবাইলের নিরাপত্তা অ্যাপ হিসেবে ইনস্টল করেছে।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 16,774,174 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.5★★★★★ নিয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় মোবাইল এন্টিভাইরাস এটি।

Safe Security অ্যাপসটির সাধারণ বৈশিষ্ট্য:

✔ নিরাপত্তা এবং অ্যান্টিভাইরাস : Safe Security অ্যাপসটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে মোবাইলে ইনস্টল করা অ্যাপ এবং মেমরি কার্ড স্ক্যান করে।

স্ক্যান করার পর যদি কোন ভাইরাস, অ্যাডওয়্যার, ম্যালওয়্যার ইত্যাদি চিহ্নিত করতে পারে তবে তার বিরুদ্ধে কাজ করে এবং রিমুভ করে দেয়।

✔ জাঙ্ক ফাইল ক্লিনার : মোবাইলে থাকা অপ্রয়োজনীয় জাঙ্ক ফাইল ক্লিন করে, সিস্টেম ক্যাশে, ইমেজ ক্যাশে, ভিডিও ক্যাশে এবং বিজ্ঞাপন ক্যাশে রিমুভ করে স্টোরেজ স্পেস খালি করে।

✔ স্পিড বুস্টার : Safe Security অ্যাপসটি মোবাইলের মেমোরি অপ্টিমাইজ করে ফোনের গতি বাড়ায়। পাশাপাশি RAM কে পরিষ্কার রাখে এবং মোবাইলে গেম মসৃণভাবে চালানোর জন্য বুস্ট করে।

✔ কল এবং এসএমএস ফিল্টার: মোবাইলে কোন স্প্যাম কল এবং টেক্সট মেসেজ আসলে তা ব্লক করে দেয়।

✔ রিয়েল টাইম সুরক্ষা: Safe Security অ্যাপসটি মোবাইলের প্রতিনিয়তই মোবাইলে ইনস্টল থাকা অ্যাপ এবং মেমোরিতে সংরক্ষিত APK ফাইল স্ক্যান করে। পাশাপাশি মোবাইলে আর্থিক লেনদেন এবং কেনাকাটা নিরাপত্তা নিশ্চিত করে।

✔ ওয়াইফাই নিরাপত্তা: অনিরাপদ পাবলিক ওয়াইফাই কানেকশন থেকে আপনার ফোনকে সুরক্ষিত রাখতে বর্তমান ওয়াইফাই সংযোগ শনাক্ত করতে পারবেন।

✔ গোপনীয়তা এবং অ্যাপ লক: মোবইলে থাকা গুরুত্বপূর্ণ ডেটা যেমন ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, স্ন্যাপচ্যাট, ফটো অ্যালবাম এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ এবং ব্যক্তিগত তথ্য গুলোকে সুরক্ষিত রাখার জন্য Safe Security অ্যাপস লক করার একটি চমৎকার ফিচার প্রদান করে।

✔ অনুপ্রবেশকারী সেলফি: আপনার মোবাইলে যদি কেউ প্রবেশ করতে চায়, তবে তার সেলফি বা ছবি উঠে যাবে এবং তারিখ ও সময় অ্যাপসটিতে দেখতে পারবেন।

উপরোল্লিখিত ফিচার সমূহ ছাড়াও Safe Security নামক মোবাইল এন্টিভাইরাস অ্যাপসে আরো বিভিন্ন ফিচার বিদ্যমান। যা ব্যবহার করা সময় উপভোগ করতে পারবেন।

ডাউনলোড করুনঃ Safe Security – Antivirus, Booster, Phone Cleaner

৫. McAfee Security: VPN Antivirus

ভালো এন্টিভাইরাস ডাউনলোড
ভালো এন্টিভাইরাস ডাউনলোড

McAfee এন্টিভাইরাসটি অল-ইন-ওয়ান অনলাইন সিকিউরিটি প্রদান করে। পাশাপাশি মোবাইলের জন্য অ্যান্টিভাইরাস হিসেবে কাজ করে।

এটি ভাইরাস স্ক্যানার এবং ক্লিনার, ডার্ক ওয়েব মনিটরিং, নিরাপদ ব্রাউজিং, সিকিউর ভিপিএন বা প্রক্সি এবং ওয়াইফাই স্ক্যানের মাধ্যমে আপনার ডেটা এবং অনলাইন গোপনীয়তা রক্ষা করে।

50,000,000+ এরও বেশি মানুষ ইতিমধ্যেই McAfee এন্টিভাইরাসটি মোবাইলের নিরাপত্তা অ্যাপ হিসেবে ইনস্টল করেছে।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 802,430 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.6★★★★★ নিয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় মোবাইল এন্টিভাইরাস এটি।

McAfee অ্যাপসটির সাধারণ বৈশিষ্ট্য:

✔ ভাইরাস স্ক্যানার এবং ক্লিনার: ম্যাকাফি (McAfee) অ্যান্টিভাইরাসটি ভাইরাস স্ক্যানার এবং ক্লিনার হিসেবে কাজ করে। মোবাইলে থাকা ব্যক্তিগত তথ্য যেমন ছবি, অডিও, ভিডিও ইত্যাদি যাবতীয় কন্টেন্টকে সুরক্ষা প্রদান করে।

✔ নিরাপদ ব্রাউজিং: ম্যাকাফি অ্যান্টিভাইরাটি যদি আপনার মোবাইলে ইনিস্টল থাকে, তবে আপনার ইন্টারনেট ব্যবহারে অনেক সিকিউরিটি পাবেন।

যে কোন ওয়েবসাইট থেকে ফাইল ডাউনলোড করার সময় তা স্ক্যানের মাধ্যমে ক্ষতিকারক ভাইরাস আছে কিনা তা পরীক্ষা করতে পারবেন।

তাছাড়া, ক্ষতিকারক বা দূষিত ওয়েবসাইট ব্রাউজ করার সময় নিরাপদ ব্রাউজিং আপনাকে সতর্ক করবে এবং এটি আপনাকে ফিশিং থেকে রক্ষা করবে। তাছাড়া আপনার পার্সোনাল ডেটা গোপন রাখতে সাহায্য করবে।

✔ ডার্ক ওয়েব মনিটরিং – আইডেন্টিটি প্রোটেকশন: এটি McAfee অ্যাপসের অনন্য বৈশিষ্ট্য। আপনি যখন ইন্টারনেট চালাতে গিয়ে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন তখন McAfee আপনার ইমেল, ফোন নম্বর এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণ করে৷

যেনো কোন ভাবেই এই গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো ইন্টারনেটে ফাঁস না হয়। এটাই মূলত ডার্ক ওয়েব মনিটরিং প্রযুক্তি।

✔ WI-FI স্ক্যান: আপনি যখন মোবাইল দিয়ে পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করেন, তখন যদি সেটি অনিরাপদ নেটওয়ার্ক হিসেবে চিহ্নিত হয় তবে  মোবাইলে সেই ওয়াইফাই সংযোগ করার সময় সতর্কতা পাবেন।

এতে আপনার তথ্য চুরি হওয়া থেকে সহজেই বেঁচে যাবে।

✔ নিরাপদ ভিপিএন: আপনার মোবাইলের ওয়াইফাই সংযোগকে সিকিউর ভিপিএন বা প্রক্সি নেটওয়ার্ক এর মাধ্যমে গোপনীয়তা সুরক্ষা করবে।

এগুলো ছাড়াও McAfee মোবাইল এন্টিভাইরাসটি ব্যবহারকারীকে বিভিন্ন ভাবে প্রোটেক্ট করে। এতে ব্যবহারকারী মোবাইল চালাতে গিয়ে নিরাপদ থাকে।

ডাউনলোড করুনঃ McAfee Security: VPN Antivirus

৬. Avira Security Antivirus & VPN

Avira বেস্ট এন্টিভাইরাস ডাউনলোড
Avira বেস্ট এন্টিভাইরাস ডাউনলোড

Avira Security সুপার-লাইট ভাইরাস স্ক্যানার এবং ক্লিনার যা আপনার মোবাইল থেকে ভাইরাস, স্পাইওয়্যার, ম্যালওয়্যার স্ক্যান করে, ব্লক করে এবং ডিলেট করে দেয়।

ইতিমধ্যেই 10,000,000+ এরও বেশি মানুষ এভিরা সিকিউরিট এন্টিভাইরাসটি মোবাইলের নিরাপত্তা অ্যাপ হিসেবে ইনস্টল করেছে।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 631,476 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.6★★★★★ পেয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় মোবাইল এন্টিভাইরাস এটি।

Avira Security অ্যাপসটির সাধারণ বৈশিষ্ট্য:

✔ ভাইরাস স্ক্যানার এবং রিমুভার: মোবাইলকে নিয়মিতভাবে ভাইরাস স্ক্যান করতে পারবেন এবং ক্ষতিকারক যেকোনো জিনিস মুছে ফেলতে পারবেন।

✔ অ্যাডওয়্যার এবং স্পাইওয়্যার : মোবাইলে ব্রাউজ করার সময় সুরক্ষা বাড়াতে আপনার মোবাইল থেকে Avira Security এর মাধ্যমে অ্যাডওয়্যার এবং স্পাইওয়্যার ব্লক করতে পারবেন।

✔ Ransomware সুরক্ষা: আপনার মোবাইলকে Avira Security এর মাধ্যমে র‌্যানসমওয়্যার মুক্ত রাখতে পারবেন এবং আপনার ডেটা তৃতীয় পক্ষের দ্বারা অ্যাক্সেস করা বন্ধ করতে পারবেন।

✔ ডিস্ক স্ক্যানার এবং মেমোরি অপ্টিমাইজার: এভাইরা এন্টিভাইরাসের মাধ্যমে আপনার মোবাইল স্টোরেজ, মেমোরি স্ক্যান করে ভাইরাস রিমুভ করতে পারবেন।

✔ মাইক্রোফোন এবং ক্যামেরা সুরক্ষা: Avira Security এর মাধ্যমে আপনার মোবাইলের অ্যাপগুলি থেকে ক্যামেরা এবং মাইক্রোফোন অ্যাক্সেস বন্ধ করতে পারবেন। এতে আপনার গোপনীয়তা আরো বৃদ্ধি পাবে।

এই ফিচারটি ব্যবহার করার জন্য আপনার মোবাইলের এন্ড্রোয়েড ভার্সন Android 10 এর উপরে হতে হবে। নাহয় এই ফিচার ব্যবহার করা যাবে না।

✔ ওয়েব সুরক্ষা: মোবাইল দিয়ে ব্রাউজ করার সময় বিপজ্জনক ওয়েবসাইটের লিংক ব্লক করতে পারবেন।

✔ মোবাইল ভিপিএন: Avira Security Antivirus অ্যাপসটির মাধ্যমে ভিপিএন ব্যবহারে আপনার প্রাইভেসির সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারবেন।

✔ Avira Security Antivirus অ্যাপসে বিভিন্ন ভাষা সাপোর্ট করে। এতে আপনার পছন্দের ভাষা সিলেক্ট করে নিতে পারবেন।

যেই ভাষা গুলো পাবেনঃ ইংরেজি, জার্মান, ফরাসি, ইতালীয়, স্প্যানিশ, ব্রাজিলিয়ান পর্তুগিজ, রাশিয়ান, তুর্কি, কোরিয়ান, জাপানি এবং চীনা ভাষা ইত্যাদি।

এই ফিচার গুলো ছাড়াও আরো বিভিন্ন সুবিধা Avira মোবাইল এন্টিভাইরাস অ্যাপস থেকে পাবেন।

ডাউনলোড করুনঃ Avira Security Antivirus & VPN

৭. Antivirus & Virus Cleaner Lock

মোবাইলের ভাল এন্টিভাইরাস
মোবাইলের ভাল এন্টিভাইরাস

Antivirus & Virus Cleaner Lock এটি একটি নির্ভরযোগ্য অল-ইন-ওয়ান ডিভাইস অপ্টিমাইজেশন এবং সুরক্ষা অ্যাপ্লিকেশন। যা  আপনার ফোন থেকে সহজে এবং কার্যকরভাবে ভাইরাস এবং ম্যালওয়্যার ডিলেট করবে।

ইতোমধ্যেই 50,000,000+ এরও বেশি মানুষ Antivirus & Virus Cleaner Lock অ্যাপসটি মোবাইলের নিরাপত্তা অ্যাপ হিসেবে ইনিস্টল করেছেন।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 955,606 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.4★★★★★ পেয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় মোবাইল অ্যান্টিভাইরাস অ্যাপস এটি।

Antivirus & Virus Cleaner Lock অ্যাপসটির সাধারণ বৈশিষ্ট্য:

✔ ফোন বুস্টার: Antivirus & Virus Cleaner Lock অ্যাপসটি আপনার ফোনের Memory এবং RAM এর স্পিড অপ্টিমাইজ করে। মোবাইলের ব্যাকগ্রাউন্ডে চলতে থাকা অতিরিক্ত অ্যাপসের কাজ স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ করে দেয়। এতে মোবাইলের স্পিড বুস্ট হয়।

✔ APPLOCK পাসওয়ার্ড: এটি মোবাইলে থাকা ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত করতে সাহায্য করে।

Antivirus & Virus Cleaner Lock অ্যাপটি আপনার মোবাইলে থাকা অন্যান্য অ্যাপসের মাধ্যমে প্যাটার্ন লক, পাসওয়ার্ড, ফিঙ্গারপ্রিন্ট ইত্যাদি সিকিউরিটি সিস্টেম ব্যবহার করে অনুপ্রবেশকারীদের হাত থেকে আপনার গুরুত্বপূর্ণ ডেটা সুরক্ষিত রাখে।

✔ রিয়েল টাইমে মোবাইলের সকল অ্যাপ্লিকেশন, গেম, সেটিংস, ফাইল স্ক্যান করে এবং ক্ষতিকারক বিষয়বস্তু অটোমেটিক ভাবে সরিয়ে দেয়।

✔ ওয়াইফাই নিরাপত্তা: Antivirus & Virus Cleaner Lock অ্যাপ্লিকেশনটি হ্যাকারের আক্রমণ থেকে আপনার ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক রক্ষা করতে সাহায্য করে।

এগুলো ছাড়াও এই Apps টির মাধ্যমে ব্যবহারযোগ্য আরো অনেক ফিচার রয়েছে। যা আপনার দৈনন্দিন মোবাইল ব্যবহারে কাজে লাগতে পারে।

মোবাইল এন্টিভাইরাস গুলোর মধ্যে Antivirus & Virus Cleaner Lock অ্যাপটি বিশ্বের প্রায় ৫০ মিলিয়ন মানুষ ব্যবহার করছে।

ডাউনলোড করুনঃ Antivirus & Virus Cleaner Lock

৮. Phone Cleaner – Virus cleaner

এন্টিভাইরাস ফ্রি ডাউনলোড
এন্টিভাইরাস ফ্রি ডাউনলোড

Phone Cleaner – Virus cleaner এই অ্যাপটি একটি অ্যান্টিভাইরাস যা মোবাইলের ভাইরাস পরিষ্কারের পাশাপাশি জাঙ্ক ফাইল ক্লিনার, অ্যাপ লক, ফোন বুস্টার, অ্যাপ ম্যানেজার, CPU কুলার এবং নোটিফিকেশন ক্লিনার দিয়ে আপনার ফোনকে অপ্টিমাইজ করতে সাহায্য করে।

ইতোমধ্যেই 10,000,000+ এরও বেশি মানুষ Phone Cleaner – Virus cleaner অ্যাপটি মোবাইলের নিরাপত্তার জন্য ইনিস্টল করেছেন।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 295,162 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.4★★★★★ পেয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় Mobile Antivirus অ্যাপ এটি।

Phone Cleaner – Virus cleaner অ্যাপটির সাধারণ বৈশিষ্ট্য:

✔ junk ক্লিনার : Phone Cleaner – Virus cleaner অ্যাপটি একটি সুপার ফাস্ট ক্লিনার, যা আপনার ফোনের জাঙ্ক, ক্যাশে, অপ্রয়োজনীয় apk এবং টেম্প ফাইলগুলি সরাতে কাজ করে।

এর মাধ্যমে আপনার ফোনের স্টোরেজ স্পেস খালি হয় এবং ফোনের পারফর্মেন্স বৃদ্ধি পায়।

✔ ভাইরাস স্ক্যান:  ভাইরাস ক্লিনার (Virus cleaner) অ্যাপটি সর্বদায় মোবাইল স্ক্যান করে এবং ভাইরাস বা ক্ষতিকারক জিনিস শনাক্ত করে রিমুভ করে দেয়।

✔ মোবাইল বুস্টার: মোবাইলের RAM খালি রাখতে সাহায্য এবং ব্যাকগ্রাউন্ডে চলতে থাকা অ্যাপগুলোকে বন্ধ করে দেয়। এতে মোবাইলের পারফর্মেন্স বৃদ্ধি পায়।

Phone Cleaner অ্যাপটি আপনার মোবাইলে ইনিস্টল থাকা কালীন যখন স্ক্রীন চালু থাকে, তখন আপনি মোবাইলটি ঝাঁকুনি দিয়ে আপনার ফোনকে বুস্ট করতে পারবেন। এটি এই অ্যাপের অনন্য একটি দারুণ ফিচারও বটে।

✔ ডুপ্লিকেট ফটো: Phone Cleaner অ্যাপটি একটি Artificial intelligence বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ফিচার অফার করে, যা আপনার গ্যালারিতে থাকা ছবিগুলোকে স্ক্যান করে ডুপলিকেট ছবি বের করতে পারে।

অর্থাৎ, একই ছবি যদি আপনার মোবাইলে অনেক গুলো থাকে তবে তা শনাক্ত করতে পারে। ডুপলিকেট ছবি মোবাইলের অতিরিক্ত মেমোরি স্পেস দখল করে নেয়।

আপনি Phone Cleaner অ্যাপটির মাধ্যমে মোবাইল থেকে ডুপলিকেট ছবি শনাক্ত করে ডিলেট করে মোবাইলের স্টোরেজ বা মেমোরি স্পেস খালি করতে পারবেন।

✔ নিরাপদ ব্রাউজিং: অ্যাপটি আপনার মোবাইলে ব্যবহার করলে ব্রাউজিংয়ের নিরাপত্তা প্রদান করবে। অর্থাৎ, ইন্টারনেট ব্যবহার করা কালীন সময়ে এটি ব্রাউজারকে প্রোটেক্ট করবে। এতে মোবাইলে ভাইরাস প্রবেশ করতে পারবে না এবং নিরাপদে ব্রাউজিং করা যাবে।

✔ ওয়াইফাই নিরাপত্তা : Phone Cleaner অ্যাপটি ওয়াইফাই এর অননুমোদিত সংযোগ সনাক্ত করতে পারে। অনিরাপদ পাবলিক ওয়াইফাই থেকে আপনার মোবাইলকেও নিরাপত্তা দেবে।

✔ সিপিইউ কুলার : এই ফিচারটি আপনার মোবাইলের CPU এর গতি বাড়াবে এবং ঠাণ্ডা রাখতে সাহায্য করবে।

মোবাইল অতিরিক্ত গরম হয়ে গেলে অ্যাপটির সাহায্যে দেখে নিতে পারবেন কোন কোন অ্যাপের কারণে মোবাইল গরম হচ্ছে। দেখার পর তা আপনি বন্ধ করতে পারবেন।

✔ নোটিফিকেশন ক্লিনার: অনেক সময় আমাদের মোবাইলে অপ্রয়োজনীয় অনেক মেসেজ আসে। অনেকেই এতে বিরক্ত হই।

Phone Cleaner অ্যাপটিতে নোটিফিকেশন ক্লিনার নামের একটি ফিচার রয়েছে, যা দিয়ে আপনি খুব সহজেই সেই সমস্ত নোটিফিকেশন ডিলেট করতে পারবেন।

✔ অ্যাপ লক : App lock ফিচারটি খুবই চমৎকার।  ফেসবুক, মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপ, গ্যালারি বা পছন্দের যেকোনো অ্যাপে অতিরিক্ত প্যাটার্ন বা পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য নিরাপদ ও সুরক্ষিত রাখতে পারবেন।

উপরোল্লিখিত ফিচার গুলো ছাড়াও Phone Cleaner অ্যাপটিতে আরো ব্যবহারযোগ্য ফিচার রয়েছে। যা আপনাকে মোবাইল ব্যবহারে হ্যাপি করতে পারে।

ডাউনলোড করুনঃ Phone Cleaner – Virus cleaner

৯. Norton 360 Mobile Security

Norton মোবাইল এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার বা অ্যাপস
Norton মোবাইল এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার বা অ্যাপস

Norton 360 Mobile Security মোবাইলকে সুরক্ষিত রাখার খুবই শক্তিশালী Android অ্যাপ। এটি ভাইরাস, র‍্যানসমওয়্যার, ম্যালওয়্যার, স্পাইওয়্যার এবং অন্যান্য সাইবার ক্রাইম থেকে রক্ষা করতে সুরক্ষা প্রদান করে।

ইতোমধ্যেই 50,000,000+ এরও বেশি মানুষ Norton 360 Mobile Security অ্যাপটি মোবাইলের নিরাপত্তার জন্য ইনিস্টল করে ব্যবহার করছেন।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 1,641,837 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.3★★★★★ পেয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় Mobile Antivirus অ্যাপ এটি।

Norton 360 Mobile Security অ্যাপটির সাধারণ বৈশিষ্ট্য:

✔ মোবাইল নিরাপত্তা: র‍্যানসমওয়্যার, স্পাইওয়্যার, ম্যালওয়্যার এবং অন্যান্য অনলাইন হুমকির বিরুদ্ধে রিয়েল-টাইম অ্যান্টিভাইরাস হিসেবে কাজ করে।

✔ Norton Secure VPN: অনেক সময় ইন্টারনেট ব্যবহারে আমাদের আইপি বা লোকেশন হাইড করা প্রয়োজনীয় বটে। যেমন,  ভ্রমণে বের হলে।

তাছাড়া অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ ওয়েবসাইটের এক্সেস বিভিন্ন দেশের জন্য ব্লক করা থাকে। তখন Norton VPN এর সাহায্যে সেই সমস্ত সাইট অ্যাক্সেস করতে পারবেন।

✔ Wi-Fi নিরাপত্তা সতর্কতা: অনেক পাবলিক ওয়াইফাই আছে যেগুলো সাধারণ ব্যবহারকারীর জন্য সম্পূর্ণ অনিরাপদ।

আপনার মোবাইলে যদি Norton 360 Mobile Security অ্যাপটি ইনিস্টল থাকে তবে সেই সমস্ত অনিরাপদ পাবলিক Wi-Fi নেটওয়ার্ক হতে সাবধান করা হবে।

✔ ওয়েব সুরক্ষা: মোবাইলে ব্রাউজিং করার সময় বা অ্যাপ, টেক্সট মেসেজ এবং ইমেল থেকে কোন লিঙ্কে ক্লিক করার পর সেই লিঙ্ক যদি প্রতারণামূলক (ফিশিং) এবং দূষিত ওয়েবসাইটের লিঙ্ক হয় তবে তা থেকে আপনাকে সুরক্ষা প্রদান করবে।

✔ ডার্ক ওয়েব মনিটরিং: Norton 360 Mobile Security অ্যাপটি ডার্ক ওয়েব মনিটরিং করে এবং আপনার ব্যক্তিগত কোন তথ্য ডার্ক ওয়েবে শনাক্ত করতে পারবে আপনাকে অবহিত করবে।

✔ SMS নিরাপত্তা: এই ফিচারটি সকল ধরণের স্প্যাম এসএমএস, টেক্সট বার্তা ফিল্টার করে যাতে ফিশিং আক্রমণ থেকে ব্যবহারকারী ক্ষতিগ্রন্ত নাহয়।

✔ ডিভাইস রিপোর্ট কার্ড: এই ফিচারটি প্রায় মোবাইল ব্যবহারকারীর জন্য গুরুত্বপূর্ণ মনে করি। পূর্বে স্ক্যান করা Wi-Fi নেটওয়ার্ক, ওয়েবসাইট, ডিভাইসের দুর্বলতা এবং ঝুঁকিপূর্ণ অ্যাপগুলি সম্পর্কে প্রতি ৩০ দিনের রিপোর্ট দেখাবে।

এই রিপোর্ট পর্যাবেক্ষণ করে আপনি আপনার মোবাইলের সিকিউরিটি আরো বৃদ্ধি করতে পারবেন।

উপরোল্লিখিত ফিচার গুলো ছাড়াও Norton 360 মোবাইল এন্টিভাইরাস অ্যাপটি ব্যবহার করার মতো আরো চমৎকার ফিচার অফার করে। যা একজন মোবাইল ব্যবহারকারী হিসেবে সেই সমস্ত ফিচার উপভোগ করে স্বাচ্ছন্দবোধ করবে।

ডাউনলোড করুনঃ Norton 360 Mobile Security

১০. GO Security-AntiVirus, AppLock, Booster

মোবাইল এন্টিভাইরাস ডাউনলোড
মোবাইল এন্টিভাইরাস ডাউনলোড

তালিকার সর্বশেষ অ্যাপটির নাম GO Security-AntiVirus, AppLock, Booster.

এটি ভাইরাস, ম্যালওয়্যার, জাল অ্যাপস, ট্রোজান সনাক্ত করতে পারে এবং মোবাইল ফোনের নিরাপত্তা প্রদান করে।

ইতোমধ্যেই 10,000,000+ এরও বেশি মানুষ GO Security-AntiVirus, AppLock, Booster অ্যাপটি মোবাইলের নিরাপত্তার জন্য ইনিস্টল করে ব্যবহার করছেন।

Google Play Store-এ এই অ্যাপটিতে 1,275,807 মানুষের রিভিউ আছে যা গড়ে  4.6★★★★★ পেয়ে পৃথিবীর জনপ্রিয় Mobile Antivirus অ্যাপ এটি।

GO Security অ্যাপটির সাধারণ বৈশিষ্ট্য:

✔ জাঙ্ক ক্লিনার: মোবাইল যদি স্লো মনে হয় এবং মেমোরি বা স্টোরেজ পূর্ণ দেখায়, তবে এই অ্যাপটির মাধ্যমে জাঙ্ক ডিলেট করতে পারবেন।

এটি মোবাইলের সিস্টেমকে নতুনের মতো পরিষ্কার করে। এতে মোবাইলের পারফর্মেন্স অনেক বেড়ে যায়।

✔ নিরাপদ ব্রাউজার: মোবাইল ব্রাউজিংকে নিরাপদ রাখে এবং ব্যক্তিগত তথ্যকে প্রোটেক্ট করে। যা আপনাকে হ্যাকার বা ক্ষতিকারক হুমকি থেকে রক্ষা করতে পারে।

✔ মোবাইল নিরাপত্তা: মোবাইলের ভাইরাস স্ক্যান করে এবং ক্ষতিকারক কোন জিনিস শনাক্ত করতে পারলে তা ডিলেট করে দেয়।

✔ নোটিফিকেশন ম্যানেজার: বিরক্তিকর সকল অপ্রয়োজনীয় মেসেজ অটোমেটিক ভাবে তারা ডিলেট করে দেয়। এতে ব্যবহারকারীর অনেক সময় বাঁচে।

✔ AppLock: মোবাইলের যে কোন অ্যাপকে লক করার মাধ্যমে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রাখতে পারবেন।

✔ ফোন অ্যালার্ম: আপনার অনুমতি ছাড়া যদি কেউ আপনার ফোন ধরে বা চুরি করতে চেষ্টা করে তবে অটোমেটিক অ্যালার্ম বাজবে। এতে আপনার অবর্তমানে কেউ ফোন ধরতে সাহস করবে না এবং কেউ যদি ফোন চুরি করতে আসে তবে সহজেই চোর ধরা খাবে।

✔ প্রাইভেসি ক্লিনার: আপনি যখন কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর বেরিয়ে যান, তখন আপনার ব্রাউজার থেকে সেই তথ্য মুছে ফেলা হবে। আপনি কি করছেন তা যেনো কেউ শনাক্ত করতে না পারে।

তবে এই চমৎকার ফিচারটিকে কেউ অপব্যবহার করবেন না।

GO Security সিকিউরিটি অ্যাপটিতে আরো বিভিন্ন ফিচার বিদ্যমান। যা আপনি ব্যবহার করার মাধ্যমে উপভোগ করতে পারবেন।

ডাউনলোড করুনঃ GO Security-AntiVirus, AppLock, Booster

গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথাঃ

প্রিয় পাঠক, অনেকেই মোবাইল এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ব্যবহারের গুরুত্ব বুঝেন, আবার অনেকেই বুঝেন না। তবে যে কোন মোবাইলকে নিরাপদ প্রক্রিয়ায় ব্যবহার করার জন্য এন্টিভাইরাস খুবই কার্যকরী।

বর্তমান যেই লেটেস্ট মোবাইল গুলো বাজারজাত করা হচ্ছে, প্রায় সব ধরণের মোবাইলেই ডিফল্ট ভাবে এন্টিভাইরাস দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এটি অবশ্যই ইউজারকে ইলেক্ট্রনিক ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত রাখবে।

তবে প্রত্যেক মোবাইল ব্যবহারীকে সচেতন হওয়া জরুরি। সচেতনতা এন্টিভাইরাসের চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ।

অনেকেই প্রশ্ন করতে পারেন এন্টিভাইরাস কোনটা ভালো হবে?

আমি পার্সোনালি বলবো, উপরোল্লিখিত যেই সেরা ০ টি মোবাইল অ্যান্টিভাইরাস এর কথা বলা হয়েছে, আপনি এগুলো থেকে আপনার পছন্দ অনুযায়ী যে কোনোটা ব্যবহার করতে পারেন। প্রত্যেকটা এন্টিভাইরাসই যথেষ্ট কার্যকরী।

অ্যান্টিভাইরাস গুলো ব্যবহারের পূর্বে গুগল প্লে-স্টোর থেকে কাঙ্খিত এন্টিভাইরাস সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে পারবেন।

আজ এই পর্যন্তই। উপরে উল্লেখিত কোন এন্টিভাইরাসটি আপনার সবচেয়ে পছন্দের তা কমেন্টে জানিয়ে দিন। সবাইকেই ধন্যবাদ।

NAZIRUL ISLAM NAKIB

যত জ্ঞান-ধন করেছি অর্জন জীবনের প্রয়োজনে,
তার সবটুকুই বিলাতে চাই সৃষ্টির কল্যাণে।

Add comment

সাবস্ক্রাইব করুন 👇

Your Header Sidebar area is currently empty. Hurry up and add some widgets.

error: কপি করা যাবে না বস!!