বিখ্যাত কবিদের রোমান্টিক প্রেমের কবিতা

রোমান্টিক প্রেমের কবিতা সমগ্র

পৃথিবীতে এমন কোন সৃষ্টিজীব সৃজন হয়নি, যার হৃদয়ে প্রেম -ভালোবাসা নেই। মহান স্রষ্টা পরাক্রমশালী আল্লাহ প্রেম-ভালোবাসার টানেই সৃষ্টি করেছেন এই মহাবিশ্ব। সৃষ্টিকূলের হৃদয়েও গেঁথে দিয়েছেন সেই ভালোবাসার টান। আর এই ভালোবাসার টানেই কবিরা লিখে থাকেন বৈচিত্রময় প্রেমের কবিতা। যারা সত্যিকারের প্রেম-ভালোবাসায় বিশ্বাসী, তাদেরই জন্য এই আয়োজন। রোমান্টিক প্রেমের কবিতা সিরিজের এই পর্বে আপনাকে স্বাগতম!

প্রেমের কবিতা [১] ভাঙা ঘরের স্মৃতি

আমি থাকি এমন ভাঙা ঘরে চাঁদনী রাতে বেড়ার ফাঁকে জোছনার আলো পড়ে, কাষ্ঠাসনে শুয়ে আমি দেখি চাঁদের আলো হিমাংশুকে ক্ষণে ক্ষণে ঘুচায় মেঘ কালো। চাঁদের আলোয় আকাশ পানে উড়ে পরীর দল, ইন্দ্রজাল করতে আমায় বিছায় প্রেমের আঁচল! ঠিক তখনী চাঁদ মামাটা নিচে আসে নামি, মম ললাটে অনুরাগের দেয় যে পরশ চুমি। দূর গগনের ক্লান্ত মনের সুখ তাঁরাটা হাসে, ভালোবাসার কমল ছুড়ে থাকতে চায় সে পাশে! আমার হতে মেঘ-রাজীটা বৃষ্টি হয়ে কাঁদে, সেও না’কি পড়েছে আমার ভালোবাসার ফাঁদে। অন্ধকারে মুগ্ধ করে হাসনাহেনা ঘ্রাণে, ভালোবাসার কথা বলে চুপি চুপি কানে। গভীর রাতে মুক্তদানায় আলোর জোনাক জ্বলে, শূন্যে-ভেসে হাতছানিতে প্রেমের কথা বলে। মুচকি হেসে যাই হারিয়ে মেলি স্বপ্ন-ডানা, আমায় ভালো-বাসোক সবাই নেইতো কোন মানা!

তোমার মাঝে কি এমন আকর্ষণ!

বলো, কি এমন অনুভূতি ঢেলে দিয়েছ এ-মনে আজও ভুলতে পারিনা তোমায় যেই কারণে বলো তোমার মাঝে আছে কি এমন আকর্ষণ যার জন্যে তোমার কাছে বারবার ছুটে যায় মন!

তোমার আছে কি এমন কোমল পরশ সীমাহীন এটা কোন মৌসুমে নয়, প্রেমমত্ত, ছুটি প্রতিদিন বলো না কি করে আমায় করেছ মহা প্রেমভক্ত তাই তোমার আশায় চলে যায় কত ঘুমহীন নক্ত!

তুমি তো জানো আমি স্পষ্টভাষী নই, তবু- আমাকেও ভালোবাসো ফেলে দেও না কভু জানি আমার হৃদয়ের কথাগুলো তুমি বোঝো তাই তোমার জন্যেই এ-প্রাণ করে শত পূজো!

আমায় এতটাই ভালোবাসো যা আমি পারিনা তবু আমার প্রতি সহায় তুমি কভু রাগ হও না এমন প্রেমিক পৃথিবীতে দ্বিতীয়ত আর নেই তাই তোমাকেই ভালোবাসি এ হৃদয় থেকেই!

তোমার জন্য একটি ঘর বেঁধেছি এই মনে জানি তুমি অনেক খুশি হবে এ-কথা শুনে! এ ঘরে প্রবেশ করতে কাউকে অনুমতি দেইনা তোমায় ছাড়া ত্রিভুবন জুড়ে কাউকেই চাই না!

তোমার খুশির জন্য এপ্রাণ যদিও যায় ঝরে তবুও ভালোবাসা মলিন হবে না, যাব না নড়ে আমি এই কথার উপর অটল থাকবোই চির বিশ্বাস কর! প্রত্যয় বুকে মনোবল আছে দৃঢ়!

আমি হিমাংশুর কাছে প্রশ্ন করি রাত জেগে যাকে ভালোবাসি, সে কভু আমার প্রতি রাগে? তবে বলে দিও তাকে, এ-মন ভালোভাসে যাকে হৃদয়ের কুটিরে রাখে, চিরদিন তাঁর ছবি আঁকে।

তুমি যেমন সুন্দর, তোমার নামগুলো ঠিক তাই তোমার মতো সৌন্দর্যের অধিকারী কেউ নাই! যে যাই বলুক, জানি গুণে-মানে তুমিই অনন্য তোমার ভালোবাসা দিয়ে আমায় করে দাও ধন্য!

কি লিখবো, আমি সত্যিই এক্সসাইটেড আজ তাই ঠিক মত ব্রেইন করছে না ভালো কারুকাজ মেনে নিও হৃদয়ের প্রেম, আমার এই ভালোবাসা তুমিও আমায় ভালোবাসিও, করো না নিরাশা!

সত্যি বলতে তোমায় ছাড়া কিছু ভালো লাগে না এটাও সত্য, এমন প্রেম কারো প্রতি জাগে না! তব অনুরাগে অন্ধ! তুমি মন্দ ভেবো না আমায় আমার একটা কবিতা উপঢৌকন দিচ্ছি তোমায়!

লেখকের কথাঃ

প্রেম-ভালোবাসা একটি পবিত্র জিনিস। তবে বর্তমান সমাজের কিছু মানুষ আছে, যারা প্রেম-ভালোবাসাকে নগ্নতার সাথে মিশিয়ে দিয়েছে। বিভিন্ন কবিদের প্রেমের কবিতার মাঝেও নগ্নতার ছাড়াছড়ি। এটা কখনই প্রকৃত প্রেম বা ভালোবাসা হতে পারেনা। এটা কেবলই স্বার্থ! এই ধরণের নগ্নমূখী প্রেম এবং প্রেমের কবিতা হতে আমাদেরকে বেরিয়ে আসতে হবে। মনে রাখতে হবে আমাদের প্রত্যেকটা লেখাই বাংলা ভাষা এবং বাংলা সাহিত্যের সাথে মিশে আছে। আমাদের লেখাগুলোই আগামী প্রজন্মের জন্য আলো। পরিশেষে বাংলা সাহিত্য এবং বাংলা কবিতা পবিত্রতার ছোঁয়ার বিশ্বময় হোক এই প্রত্যাশা রেখে আজকের পর্ব এখানেই শেষ করছি।

ItNirman English

Add comment