ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

২০২২ সালে এসে ইউটিউবের সাথে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার মতো কোন অপশন নেই। সমাজের ছোট-বড় প্রায় সকল মানুষই ইউটিউবের নাম শুনেছেন। অনেকেই হয়ত এটাও দেখেছেন যে, ইউটিউব থেকে বিভিন্ন মানুষ হাজার হাজার ডলার ইনকাম করছে। এটা অবাস্তব কিছু নয়, বরং বাস্তব এবং প্রমাণিত। তাই নতুনদের অনেকেই জিজ্ঞাসা করে ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম সম্পর্কে কথা বলার জন্য।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো তার বিস্তারিত বিষয়াদি জানার আগে ইউটিউবের নিয়মকানুন জানা জরুরি। কেননা, ইউটিউব চ্যানেল তারাই খুলতে চায়, যাদের ইউটিউবার হওয়ার স্বপ্ন থাকে।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো?

আমরা প্রায় সকলেই ইউটিউব এর বেসিক বিষয় জানি। যেমনঃ ইউটিউব হলো ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম, ইউটিউব থেকে ডলার আয় করা যায়, ইউটিউবে নিজের জনপ্রিয়তা বাড়ানোর পাশাপাশি চমৎকার ক্যারিয়ার বিল্ড করা যায় ইত্যাদি। এই সমস্ত বেসিক বিষয় আমাদের সকলেরই জানা।

পড়ার সাজেশনঃ
কিভাবে ব্লগিং শুরু করবো?
গ্রাফিক্স ডিজাইন কি এবং গ্রাফিক্স ডিজাইন কত প্রকার?

তবে ইউটিউবে প্রফেশনালি কাজ করার জন্য শুধুমাত্র এই বেসিক জ্ঞান দিয়ে সামনে এগোনো যাবে না। আপনি হয়ত ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম জেনে নিজে নিজেই একটি চ্যানেল খুলে নিতে পারবেন। এটা কোন বিষয় না। ইউটিউবের পলিসি মেনে কাজ না করলে ইউটিউব আপনার জন্য আর্থিক সহযোগি হবে না।

যাইহোক, এই আর্টিকেলের বিষয় হলো ’কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো।’ চলুন জেনে নিই প্রফেশনাল মানের ইউটিউব চ্যানেল খোলার  নিয়ম সম্পর্কে।

ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

একটি প্রফেশনাল মানের ইউটিউব চ্যানেলে খোলার জন্য যা যা প্রয়োজন হবেঃ

  • জিমেইল একাউন্ট
  • লোগো
  • চ্যানেল আর্ট বা চ্যানেল ব্যাকগ্রাউন্ড
  • মোবাইল নাম্বার

ইউটিউব চ্যানেল দুইভাবে খোলা যায়। আপনার যদি একটি জিমেইল একাউন্ট থাকে তবে ইউটিউবে প্রবেশ করার পর জিমেইল প্রোফাইলে সাথে মিল রেখে এক ক্লিকেই চ্যানেল তৈরি করা যায়। তবে এটি ব্র্যান্ড চ্যানেল নয়। এই ধরণের চ্যানেলে আলাদা ভাবে কোন লোগো ও চ্যানেল আর্ট সেটআপ দেওয়া যায় না। মোবাইল নাম্বার দিয়েও চ্যানেল ভেরিফাই করার প্রয়োজন হয় না।

আর ইউটিউবের ব্র্যান্ড চ্যানেলে গুলো মূলত প্রফেশনালি কাজের জন্য। তাই ব্র্যান্ড চ্যানেল তৈরিরে কিছুটা কাস্টম পদ্ধতি অবলম্বন করতে হয়। তাছাড়া, এই ধরণের চ্যানেলকে মোবাইল নাম্বার দিয়ে ভেরিফাই করার পাশাপাশি লোগো ও চ্যানেল আর্ট সেটআপ দিতে হয়।

তবে প্রকৃতপক্ষে ইউটিউব চ্যানেলের প্রকারভেদে বিশেষ কোনো পার্থক্য নেই। তবে চ্যানেলে ফিচার সমৃদ্ধতাই কম-বেশী হয়। ভিডিও পাবলিশ করার প্রসেস প্রায় একই।

পড়ার সাজেশনঃ
অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট

প্রফেশনাল লাইফে যারা ইউটিউবে কাজ করতে চান, শুরুতেই তারা প্রফেশনাল মানের ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম ফলো করে চ্যানেল খুলবেন।

আর যারা ইতোমধ্যে জিমেইল প্রোফাইলে সাথে মিল রেখে চ্যানেল খুলেছেন এবং সেটাতে কাজ করছেন, তাদেরও হতাশ হওয়ার কিছু নেই। কারণ, যেকোন সময় আপনার চ্যানেলটিকে ব্র্যান্ড চ্যানেলে কনভার্ট করতে পারবেন। যাইহোক,

ইউটিউব চ্যানেল খোলার বিষয়টি আর্টিকেলে পুরোপুরি বুঝানো সম্ভব নয়। তাই একটি ভিডিওর মাধ্যমে চ্যানেল খোলার খুঁটিনাটি বিষয়গুলো দেখানো হয়েছে। নিচের ভিডিওটি ফলো করুন।

ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম (ভিডিও)

Video Link 2 : How to Create YouTube Channel 2022

প্রিয় পাঠক! আপনারা যারা প্রশ্ন করেছিলেন কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো? তারা যদি ভিডিওটি পুরোপুরি দেখে থাকেন, তবে আশাকরি প্রফেশনাল মানের একটি ইউটিউব চ্যানেল আপনি নিজেই খুলতে সক্ষম হয়েছেন।

আমরা চেষ্টা করেছি অভিজ্ঞতার আলোকে অত্যন্ত সাবলীল ভাষায় ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম সম্পর্কে আলোচনা করার জন্য। পরবর্তী ধাপগুলোতে ইউটিউব চ্যানেল সেটিং করার নিয়ম, ইউটিউবে ভিডিও ছাড়ার নিয়ম এবং ইউটিউব নিয়ে আরো বিভিন্ন বিষয়ের আর্টিকেল লেখা হবে ইনশাআল্লাহ।

আপনি আমাদের এই আর্টিকেল এবং ভিডিওটি ফলো করে যদি ইউটিউব চ্যালেন খুলতে সক্ষম হোন তবে আপনাকে congratulations! আর যদি কোন বিষয় বুঝতে না পারেন, তবে অবশ্যই কমেন্টে আমাদের জানাবেন।। ধন্যবাদ

NAZIRUL ISLAM NAKIB

যত জ্ঞান-ধন করেছি অর্জন জীবনের প্রয়োজনে,
তার সবটুকুই বিলাতে চাই সৃষ্টির কল্যাণে।

2 comments

error: Content is protected !!