সেরা ১০ ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস তালিকা

সেরা ১০ ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস তালিকা

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং শতভাগ ট্রাস্টেড ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস তালিকা দেওয়ার জন্য অনেকেই বলেন। এই আর্টিকেলটি তাদের জন্যই তৈরি করা হয়েছে।

আজ আমি ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেস গুলো নিয়ে কথা বলব। যেগুলো অনলাইন মার্কেটপ্লেস এবং আপনিও কাজ করার সুযোগ পাবেন।

বর্তমান সময়ে অনলাইন ইনকাম এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো Freelancing.

বাংলাদেশ এবং ইন্ডিয়া সহ পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি দেশেই ফ্রিল্যান্সিং জব এর চাহিদা রয়েছে।

সারাবিশ্বে Freelancing এ ইন্ডিয়া প্রথম এবং বাংলাদেশ দ্বিতীয় বৃহত্তম অবস্থানে রয়েছে।

আমাদের দেশে জনসংখ্যার তুলনায় চারকিক্ষেত্র কম হওয়ায় ফ্রিল্যান্সিংকে শিক্ষিত সমাজের প্রায় প্রতিটি মানুষই খুব সম্ভাবনাময় হিসেবে দেখছে।

বেকারত্ব রোধে এবং ঘরে বসে অনলাইন ইনকাম এর জন্য Freelancing সেক্টরটিকে আমাদের সকলের জন্যই অপর্চুনিটি হিসেবে নেওয়া যায়।

আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং ইনকাম করতে চান, তবে আপনাকে Freelancing মার্কেটপ্লেস গুলো সম্পর্কে জানতে হবে।

এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে সেরা ০ টি অনলাইন মার্কেটপ্লেস এর তালিকা তুলে ধরেছি, যেটা আপনার অনলাইন ইনকামকে অনেক সহজ করে তুলবে।

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস কি?

মার্কেটপ্লেস বা ফ্রিল্যান্সিং সাইট বলতে বায়ার এবং ফ্রিল্যান্সারদের মধ্যে সংযোগস্থাপনকারী একটি ওয়েব সফটওয়্যার।

অর্থাৎ, একটি ওয়েবসাইটকে ব্যবহার করে বিশ্বের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ ভার্চুয়াল ভাবে একত্রিত হয়, এবং সেই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একে অপরের কাজ করেন।

ফ্রিল্যান্সিং সাইট গুলোতে যারা প্রবেশ করে, তাদের দুটি লক্ষ্য থাকে।

  • অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের দিয়ে কাজ করানো।
  • নিজের অভিজ্ঞতাকে সার্ভিস হিসেবে ব্যবহার করা।

যাদেরকে আমরা বায়ার বলি, তারা মূলত অভিজ্ঞ লোকদেরকে টাকার বিনিময়ে হায়ার করে কাজ করিয়ে নেয়।

আর ফ্রিল্যান্সারা বায়ারদের কাজ করে কাজের পারিশ্রমিক নেয়।

মোটকথা, বায়ার মানে যিনি কাজ দেয় আর ফ্রিল্যান্সার মানে যিনি কাজ করেন।

ফ্রিল্যান্সার এবং বায়ারদের মাঝে যোগাযোগ স্থাপনে যেই ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করা হয়েছে, সেটিই মূলত Freelancing Marketplace.

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস লিস্ট

আমি এই তালিকায় যেই মার্কেটপ্লেস গুলো লিস্টেড করেছি, সেগুলো শতভাগ ট্রাস্টেড এবং কাজ শেষে পেমেন্ট করে।

পেমেন্ট এর বিষয়টা এজন্যই বললাম, ইন্টারনেটে অনেক ওয়েবসাইট আছে যারা কাজ করিয়ে টাকা দেয় না।

সুতরাং, যে কোন সাইটে কাজ করার আগে আপনাকে সেই সাইট সম্পর্কে পুরোপুরি জানতে হবে।

ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়ার জন্য যেই সাইটগুলো সবচেয়ে ভালো তা নিচে তুলে ধরা হলো।

১. Upwork

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসের তালিকা
আপওয়ার্ক মার্কেটপ্লেস

পূর্বে oDesk নামে পরিচিত, আপওয়ার্ক মার্কেটপ্লেসটি খুবই জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হয়ে উঠেছে।

এই ওয়েবসাইটে ২ মিলিয়ন নিবন্ধিত ফ্রিল্যান্সার এবং প্রায় ৫ মিলিয়ন নিবন্ধিত ক্লায়েন্ট সহ বিশ্বের বৃহত্তম ফ্রিল্যান্স প্ল্যাটফর্ম।

যেকোন কাজের কথা চিন্তা করেননা কেন, আপনি নিশ্চিতভাবে প্রযুক্তি সম্পর্কিত প্রকল্প এবং কম্পিউটার রিলেটেড কাজের উপর আপওয়ার্ক প্ল্যাটফর্মে ফ্রিল্যান্সার পাবেন।

আপনিও চাইলে এই ওয়েবসাইটে মাধ্যমে কাজ করতে পারবেন।

আপওয়ার্ক খবুই ইউজার ফ্রেন্ডলি একটি ওয়েবসাইট

ওয়েবসাইটটিতে নিবন্ধন করার জন্য আপনার বর্তমান দক্ষতার ভিত্তিতে সাধারণ কিছু তথ্য জমা দিতে হবে।

উদাহরণস্বরূপঃ

  • ইমেইল ঠিকানা
  • মোবাইল নাম্বার
  • আপনার ঠিকানা
  • নিজস্ব দক্ষতার বর্ণনা
  • পেমেন্ট মেথর্ড ইত্যাদি

এই তথ্য গুলো দিয়ে আপনি জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস আপওয়ার্কে নিবন্ধন বা একাউন্ট খুলতে পারবেন।

প্রাথমিকভাবে ক্লায়েন্ট এবং ফ্রিল্যান্সারদের কাজের উপর এই মার্কেটপ্লেসটি ২০% ফি চার্জ করে। তবে আপনি একই ক্লায়েন্টের সাথে বেশি কাজ করার সাথে সাথে এই পার্সেনটিস হ্রাস পায়।

মনে করুন আপনি একজন ক্লায়েন্টের সাথে $500 এর কাজ করলেন, প্রথম অবস্থায় এখান থেকে ২০% ফি আপওয়ার্ক কেটে নেবে।

তারপর যদি এই একই ক্লায়েন্টের কাজ করেন, তবে ২০% ফি কমে ০% হয়ে যায়।

তারপর আবারো আপনি যদি একই ক্লায়েন্টের জন্য $10,000 এর প্রজেক্টও করেন,  তখন তারা শুধুমাত্র ৫% কমিশন চার্জ করবে।

আপওয়ার্কে আপনি Airbnb, Microsoft, Dropbox ইত্যাদির মতো বড় বড় ব্র্যান্ডের সাথে কাজ করতে পারবেন।

লিংকঃ Upwork

২. Fiverr

কোনটি ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস
ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসের তালিকা

ফাইবার মার্কেটপ্লেসটিও অনেক জনপ্রিয়।

এটি ফ্রিল্যান্সার এবং ব্যবসাগুলিকে ডিজিটালভাবে সংযুক্ত করে। এই ওয়েবসাইটে ২৫০ টিরও বেশি ক্যাটাগরির সাথে পেশাদার পরিষেবা অফারগুলির একটি চিত্তাকর্ষক, ব্যাপক ভাণ্ডার রয়েছে৷

এই ওয়েবসাইটে ফ্রিল্যান্সাররা তাদের দক্ষতার উপর কাজ অফার করতে পারে সেই বিষয়ের উপর পোস্ট করে এবং ক্লায়েন্টরা তাদের প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ফ্রিল্যান্সারদের অফারকৃত কাজ গুলো বেছে নেয়।

Fiverr মার্কেটপ্লেসটি Upwork থেকে তুলনামূলকভাবে বেশি অর্থ প্রদান করে এবং তারা $5 গিগ বা 20% এর জন্য $1 চার্জ করে।

এখানে সাধারণত প্রতিটি একক কাজের জন্য $5 খরচ হয় যেখানে আপনি লেখক, ফটোগ্রাফার, ভিডিও নির্মাতা, ওয়েব ডিজাইনার এবং এই ধরণের অন্যান্য কাজ খুঁজে পেতে পারেন।

এটি এন্ট্রি-লেভেল ফ্রিল্যান্সারদের জন্য একটি ভালো মার্কেটপ্লেস।

আপনি যদি ফাইবারে ডিজিটাল পরিষেবা প্রদান করতে চান, তাহলে আপনাকে একটি ফ্রিল্যান্সার বা বিক্রেতার প্রোফাইল তৈরি করতে হবে।

এর পরে আপনাকে আপনার দক্ষতার উপর বিভিন্ন গিগ তৈরি করতে হবে।

গিগ বলতে আপনি যেই ধরণের কাজ পারেন, তা শোআপ করতে হবে।

ক্লায়েন্টরা আপনার গিগ গুলো দেখবে এবং পছন্দ হলে আপনার সাথে তারা কাজ করবে কিনা তা সিদ্ধান্ত নিবে।

ক্লায়েন্টদের আকর্ষণ করার জন্য আপনি আপনার গিগকে চমৎকার ভাবে ফুটিয়ে তুলতে চেষ্টা করবেন।

তাহলে খুব সহজেই জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস ফাইবার থেকে অনেক ভালো অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

লিংকঃ Fiverr 

৩. Freelancer

ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেস
ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস

এই ওয়েবসাইটটি নতুন ফ্রিল্যান্সারদের জন্য সেরা।

যারা ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট, লোগো ডিজাইনিং, রাইটিং এবং মার্কেটিং সম্পর্কিত যেকোনো বিষয়ের প্রতিভা রয়েছে তারা এই মার্কেটপ্লেসটিকে বেছে নিতে পারেন।

এই ওয়েবসাইটটি যে শুধু নতুনদের জন্য তা কিন্তু নয়।

ফ্রিল্যান্সার মার্কেটপ্লেসেও ক্লায়েন্ট তালিকায় বড় বড় ব্র্যান্ডের নাম রয়েছে।

যেমনঃ ইন্টেল, মাইক্রোসফট, অ্যামাজন এবং বোয়িং ইত্যাদি।

আপনিও চাইলে নিজস্ব দক্ষতা দেখিয়ে তাদের সাথে কাজ করতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সার ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করা খুব সহজ। তাছাড়া তাদের ওয়েবসাইটে সাইন আপ এবং একাউন্ট ম্যানেজ করাও সহজ।

সবচেয়ে ভালো জিনিস হল এই সাইটে সাইন আপ করার জন্য আপনাকে ইন্টারভিউ বা পরীক্ষা দিয়ে পাস করতে হবে না।

তাদের 17,000,000 নিবন্ধিত ব্যবহারকারী এবং 10,000,000 প্রকল্প বা কাজ রয়েছে যা তারা তাদের সাইটে পোস্ট করে রেখেছে।

তারা 240 টিরও বেশি দেশে মানুষের সেবা করছে এবং 15 বছরেরও বেশি সময় ধরে এই শিল্পে রয়েছে।

অতএব, এটি অর্থপ্রদান, কাজ এবং ব্র্যান্ডের ক্ষেত্রে একটি সম্পূর্ণ নির্ভরযোগ্য ওয়েবসাইট।

জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস Freelancer এ কাজ করে আপনি অনেক ভালো ইনকাম করতে পারবেন।

লিংকঃ Freelancer

৪. Guru

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস কোনটি
গুরু মার্কেটপ্লেস

এই ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসটি বিশেষভাবে কোম্পানিগুলিকে সারা বিশ্ব থেকে পেশাদার ফ্রিল্যান্সার পেতে সহায়তা করার জন্য তৈরি করা হয়েছে।

সেখানে নিয়োগ প্রক্রিয়া সহজ, যা ক্লায়েন্টদের জন্য ফ্রিল্যান্সারদের নিয়োগ করা সহজ করে তোলে।

যদিও এটি একটি নতুন ওয়েবসাইট, তবে এটি অল্প সময়ের মধ্যেই 1,500,000 মিলিয়নেরও বেশি ব্যবহারকারী-বেস তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে৷

এর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে; এই পর্যন্ত  তারা 1,000,000 এরও বেশি কাজ সম্পন্ন করেছে।

তাদের সাইটে কাজ করতে হলে একটি প্রোফাইল তৈরি করতে হবে যা অনেক সহজ।

গুরু ওয়েবসাইটে প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণে চাকরির পোস্টিং থাকে, যা বিভিন্ন প্রোফাইল থেকে আসে।

তারা তাদের নিজস্ব সাইটের জন্য পাঁচটি মাসিক সদস্যপদ অফার করে; মৌলিকটি সবার জন্য বিনামূল্যে, কিন্তু তাতে আপনি বছরে মাত্র 120টি বিড করতে পারবেন।

আপনি যদি একটি কাজ পান, তাহলে গুরু মার্কেটপ্লেসটি তার জন্য ৭% ফি নেয়।

এই ওয়েবসাইটে সাধারণত প্রো লেভেলের ফ্রিল্যান্সাররা কাজ করে।

আপনি যদি কাজে দক্ষ হন তবে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস হিসেবে গুরু মার্কেটপ্লেসটি বেছে নিতে পারেন।

লিংকঃ Guru

৫. People Per Hour

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস লিস্ট
ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেস

এটি একটি বিশাল এবং সেরা ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসগুলির মধ্যে একটি।

কারণ এখানে আপনি অডিও, ভিডিও, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, ওয়েব ডিজাইন, মোবাইল ডেভেলপমেন্ট, সোশ্যাল মিডিয়া এবং আরও অনেক কিছুর মতো বিস্তৃত ক্যাটাগরির কাজ পেতে পারেন।

এই প্ল্যাটফর্মে ফ্রিল্যান্সাররা মিলিয়ন কাজের মাধ্যমে £130 মিলিয়নের বেশি অর্থ আয় করেছে।

তাদের নিয়োগ প্রক্রিয়া খুবই নমনীয়, এবং তাদের দামও সাশ্রয়ী।

আপনার প্রোফাইল তৈরি করার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি অনলাইন আবেদনপত্র পূরণ করতে হবে এবং তাদের সাইটে সাবমিট করতে হবে।

তারপর People Per Hour এর একটি মডারেশন টিম দ্বারা পর্যালোচনা করা হয় যাতে তারা সেরা ফ্রিল্যান্সারদের নিয়োগ করে।

আপনি যদি কোন ভাবে এই সাইটে আবেদনপত্রের অনুমোদন পান, তবে আপনি আন্তর্জাতিক ক্লায়েন্টদের কাছ থেকেও বড় বড় প্রকল্পগুলির একটি স্ট্রিম অ্যাক্সেস করতে পারেন।

এই ওয়েবসাইটটি নতুনদের জন্য নয়।

আপনি যদি কাজে দক্ষ হন তবে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস হিসেবে People Per Hour ওয়েবসাইটকে বেছে নিতে পারেন।

লিংকঃ People Per Hour

৬. 99 designs

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস তালিকা
99 ডিজাইন মার্কেটপ্লেস

লোগো, ওয়েব এবং গ্রাফিক ডিজাইন এর জন্য এটি একটি সেরা ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস ।

এই ওয়েবসাইটে আপনি ক্লায়েন্টের জন্য তৈরি প্রতি দুই সেকেন্ডে একটি নতুন ডিজাইন দেখতে সক্ষম হবেন।

এই সাইটটিকে কাজের সমুদ্র বলা যায়।

এই ওয়েবসাইটে আপনাকে এমন ভাবে কাজ করতে হবে, যেন আপনার কাজ গ্রাহকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে।

একজন অভিজ্ঞ ফ্রিল্যান্সার হিসেবে আপনার জন্য এই কাজটি করা অপরিহার্য।

99 ডিজাইনে, আপনি গুণমান এবং বিভিন্ন ডিজাইন সম্পর্কে আশ্বস্ত থাকতে পারেন।

এই ওয়েবসাইটটি অন্যান্য ওয়েবসাইটের তুলনায় তুলনামূলকভাবে ভিন্নভাবে কাজ করে।

ক্লায়েন্টরা তাদের ডিজাইনের সংক্ষিপ্ত বিবরণ প্রদান করে এবং ডিজাইনাররা তাদের কাজ জমা দেন; ক্লায়েন্ট তাদের পছন্দের একটি কাজ নির্বাচন করবে এবং ডিজাইনার এর জন্য পারিশ্রমিক পাবে।

এটা সাধারণত কম্পিটিশনের মতো।

এই ওয়েবসাইট সম্পর্কে একটি ভাল জিনিস হল, তারা আপনাকে একজন ফ্রিল্যান্সার হিসাবে সমর্থিত বোধ করে।

তারা চায় সবার জন্যই সুযোগ দিতে এবং ডিজাইনারদের বিশাল একটি কমিউনিটি তৈরি করতে।

আপনি নতুন বা পুরাতন যাই হোননা কেন, এই ওয়েবসাইটে আপনি কাজ করার সুযোগ পারেন।

সুতরাং, নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস হিসেবে 99 designs খুবই ভালো।

লিংকঃ 99 Designs

৭. Toptal

ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস
ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস

আপনি যদি উচ্চ-মানের অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ ফ্রিল্যান্সার হন, তবে এটিই আপনার প্রথম ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস হওয়া উচিত।

তাদের সাইটে আবেদনের প্রক্রিয়া এতটাই কঠিন যে তারা প্রতিদিন ফ্রিল্যান্সারদের থেকে হাজার হাজার আবেদন পায়, তবে এখান থেকে বাছাই করে মাত্র কয়েকটি আবেদন গ্রহণ করে।

এটি বিশ্ব-মানের ফ্রিল্যান্সারদের শীর্ষ স্তর থেকে নিয়োগের জন্য এবং সংস্থাগুলিকে সহায়তা করার জন্য তৈরি করা হয়েছে৷

এই ওয়েবসাইটে আপনি ডিজাইনার, ডেভেলপার, প্রজেক্ট ম্যানেজার এবং ফিনান্স বিশেষজ্ঞের মতো সব ধরনের কাজ এবং ফ্রিল্যান্সার পাবেন।

Toptal আপনাকে আপনার কাজের জন্য সঠিক ব্যক্তি খুঁজে পেতে সাহায্য করে যে শেষ পর্যন্ত আপনার দলের একটি অংশ হয়ে ওঠে।

আপনার স্ক্রীনিং প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হওয়ার পরে আপনি একবার নির্বাচিত হয়ে গেলে আপনি তাদের দুর্দান্ত ক্লায়েন্টদের অ্যাক্সেস করতে পারবেন।

তাদের সাথে কাজ করা বড় বড় ব্র্যান্ড রয়েছে, যেমন Motorola, Hewlett-Packard, Airbnb, Zendesk ইত্যাদি।

প্রো লেভেলের ফ্রিল্যান্সারদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস হিসেবে Toptal কে সবার সামনে রাখা যায়।

লিংকঃ Toptal 

৮. PubLoft

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস কি
লোকাল মার্কেটপ্লেস

আপনি যদি লিখতে ভালোবাসেন এবং যেকোন কিছুর উপর লেখার প্রতিভা রাখেন, তাহলে এটি আপনার জন্য একটি চমৎকার ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম হতে পারে।

এই প্ল্যাটফর্মটি বিশেষভাবে একাডেমিক লেখকদের জন্য তৈরি করা হয়েছে।

এই ওয়েবসাইটে কাজ করতে হলে আপনাকে বেশকিছু স্টেপ পেরুতে হবে।

তারা সাধারণত সবাইকেই তাদের সাইটে কাজ করার সুযোগ দেয় না।

এমনকি তাদের সাইটে প্রোফাইল খোলাটাও নতুনদের জন্য অনেক কষ্টকর।

তাদের একটি ব্যাকরণ পরীক্ষা রয়েছে যা ফ্রিল্যান্সার হিসেবে তাদের সাইটে কাজ করার জন্য আপনাকে সেই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতেই হবে।

এই প্ল্যাটফর্মের খুবই ভালো দিক হল যে, আপনি নির্ভরযোগ্য ক্লায়েন্টদের সাথে কাজ করতে পারেন।

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসের তালিকায় এই সাইটটিও বেশ জনপ্রিয়। চাইলে এই সাইটেও কাজ শুরু করতে পারেন।

লিংকঃ PubLoft

৯. Simply Hired

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসের তালিকা
লোকাল মার্কেটপ্লেস

এই মার্কেটপ্লেসে ফ্রিল্যান্সাররা প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রে কাজ খুঁজে পেতে পারেন; যারা অতিরিক্ত কাজ করতে চান তাদের জন্য এটি উপযুক্ত।

উল্লেখযোগ্য সুবিধা হল তারা প্রজেক্টের কাজ পোস্টিং বা সম্পূর্ণ করে দেওয়ার জন্য ক্লাইন্ট বা ফ্রিল্যান্সারদের কাছ থেকে চার্জ নেয় না, এই কারণেই এই ওয়েবসাইটে অসংখ্য কাজের সুযোগ রয়েছে।

এই ওয়েবসাইটে একাউন্ট খোলার জন্য আপনার একটি জীবনবৃত্তান্ত আপলোড করার মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।

এটি হয়ে গেলে আপনি এই ওয়েবসাইটে ফ্রিল্যান্সিং এর উপর বিভিন্ন চাকরি দেখতে পাবেন।

তারা ২৪ টিরও বেশি দেশে এবং ২টি ভিন্ন ভাষায় কাজ প্রদান করে, যা খুব কম ওয়েবসাইট অফার করে।

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস লিস্টটির মধ্যে এই সাইটটি নতুনদের জন্য অনেক ভালো হবে।

বিশেষ করে যারা ইংরেজি ভালো পারেন না, তবে চাচ্ছেন যে বাংলা, হিন্দি বা অন্য কোন ভাষায় ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার জন্য।

লিংকঃ Simply Hired

১০. Aquent

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস লিস্ট
ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেস

এটি ফ্রিল্যান্সারদের জন্য একটি দুর্দান্ত ওয়েবসাইট যা আপনার এবং ক্লায়েন্টের মাঝে সংযোগ তৈরি করতে সহায়তা করে।

এই মার্কেটপ্লেটিও অভিজ্ঞদের জন্য তৈরি করা।

তাদের ক্লায়েন্টরা বিভিন্ন চাকরি বা প্রজেক্ট ওয়েবসাইটটিতে পোস্ট করে এবং কাজগুলো করার জন্য তাদের ফ্রিল্যান্সারদেকে গ্রুপে পরিণত করে।

অর্থাৎ, এই সাইটে একা একা কাজ করার সুযোগ নেই। টিম ভিত্তিক কাজ করতে হয়।

ওয়েবসাইটটি প্রধাণত বিপণন, প্রযুক্তি এবং সৃজনশীল ক্যারিয়ার সম্পর্কিত কাজের অফার করে।

Aquent অনেক পুরষ্কার জিতেছে।

কারণ তারা যে মানের কাজ অফার করে, সাধারণত অন্যান্য মার্কেটপ্লেট গুলো তা করে না।

আবার তাদের একটি প্রজেক্ট সম্পূর্ণ করার জন্য একটি টিমের হাতে ছেড়ে দেওয়া হয়।

তারা সাধারণত এমন ফ্রিল্যান্সারদের গ্রহণ করে যাদের দুই বছরের বেশি অভিজ্ঞতা রয়েছে।

কিন্তু নতুন স্নাতকদেরকেও তারা স্বাগত জানায় এবং তাদের তাদের সাইটে উপলব্ধ চাকরিগুলি অন্বেষণ করতে উৎসাহ দেয়।

এছাড়াও, তারা ফ্রিল্যান্সারদের তাদের দক্ষতা তীক্ষ্ণ করার জন্য ব্যবহারিক দক্ষতার প্রশিক্ষণ দেয়, যা ফ্রিল্যান্সারদের সামগ্রিক বিকাশে অনেক সাহায্য করে।

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস তালিকায় যদিও এই সাইটে কাজ করা কঠিন মনে হতে পারে, তবে গ্রুপিং এবং প্রশিক্ষণ পদ্ধতি থাকার কারণে আপনার জন্য অনেক সহজ হয়ে যাবে।

লিংকঃ aquent

গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথাঃ

প্রিয় পাঠক, আপনি যদি বাংলাদেশী অথবা ইন্ডিয়ান হন তবে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

সকলেই জানি, এই দুটি দেশে চাকরির অভাবে বেকারত্বের হার অনেক বেশী দেখা যায়।

এই বেকারত্ব রোধে ফ্রিল্যান্সিং জব হবে পারে শিক্ষিত বেকারদের জন্য অনলাইন চাকরিক্ষেত্র।

তাছাড়া আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং জব করতে আগ্রহী হন তবে উপরোল্লিখিত ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসের তালিকাটি আপনার জন্যও অনেক ফলফসূ হবে বলে মনে করি।

কেননা, আর্টিকেলটিতে যেই সমস্ত ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেস গুলো তুলে ধরেছি, সেগুলোর সবকটাই অনলাইন মার্কেটপ্লেস। যেগুলোকে লোকাল মার্কেটপ্লেসও বলা যায়।

যাইহোক, আপনি ঘরে বসেই এই সাইটগুলোর মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং করে বিদেশী অর্থ দেশে নিয়ে আসতে পারবেন।

এই বিষয়ে যদি আপনার কোন প্রশ্ন থাকে, তবে অবশ্যই কমেন্টে জানিয়ে দিন।

আর্টিকেলটি যদি আপনার কাছে উপকারী মনে হয়, তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ

NAZIRUL ISLAM NAKIB

যত জ্ঞান-ধন করেছি অর্জন জীবনের প্রয়োজনে,
তার সবটুকুই বিলাতে চাই সৃষ্টির কল্যাণে।

Add comment

error: Content is protected !!